২৮ জানুয়ারি ২০২৩, শনিবার

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ইন্টারনেটে ট্রল, ক্ষেপলেন ড্যান ক্রিশ্চিয়ান

- Advertisement -

শেষ ওভারের প্রথম বলেই যখন সাকিব আল হাসানের কাছে স্কুপশটে বাউন্ডারি হজম করলেন, ড্যান ক্রিশ্চিয়ান হয়তো তখনই বুঝে গিয়েছিলেন সেখানেই শেষ হয়ে গেছে ম্যাচ; শেষ হয়ে গেছে পাঁচ বছর পর রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর ফাইনালে ওঠার স্বপ্নও। এই অনুভূতিটিই তো যথেষ্ট বেদনার, এর ওপর রয়েছে ক্ষুব্ধ সমর্থকদের ক্ষোভ, গালাগালি বা ট্রল; সেটিরও নাহয় অভ্যাস আছে ক্রিকেটারদের। তবে সমর্থকদের রোষানল যখন নিজের পরিবারের ওপরও এসে পড়ে, সেটি কিভাবে সহ্য করা যায়?

সহ্য করেননি ড্যান ক্রিশ্চিয়ান। সোমবার কলকাতার বিপক্ষে ম্যাচ হারার পর তাঁর স্ত্রী জর্জিয়া ডান, যিনি কিনা অন্তঃসত্ত্বা, তার ইনস্টাগ্রামে গিয়ে ক্ষুব্ধ ব্যাঙ্গালুরু সমর্থকরা নোংরা ট্রল ও গালাগালির বন্যা বইয়ে দিয়েছিল। অন্যান্য অশ্রাব্য গালাগালির পাশাপাশি ক্রিশ্চিয়ানকে ডিভোর্স দিয়ে দেওয়ার ‘পরামর্শ’ও জর্জিয়াকে দিয়েছে ট্রলকারীরা।

এসব দেখে বেশিক্ষণ চুপ থাকতে পারেননি ক্রিশ্চিয়ান। নিজের ইনস্টাগ্রামে আলাদা স্টোরিতে ক্ষুব্ধ জনতার উদ্দেশ্যে এই অজি ক্রিকেটার লিখেছেন,

‘আমার স্ত্রীর ইনস্টাগ্রাম পোস্টের কমেন্ট সেকশনে গিয়ে একবার দেখুন।  হ্যাঁ, আজ রাতে আমি খেলতে পারিনি। কিন্তু খেলাধুলায় এটি স্বাভাবিক ব্যাপার।  অনুগ্রহ করে এসব আক্রমণ থেকে আমার স্ত্রীকে রেহাই দিন”

এই ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দ্রুত চাউর হয়ে যাওয়ার পর অনেক ভক্তসমর্থকরা ক্রিশ্চিয়ান ও তার স্ত্রীর দিকে বাড়িয়ে দিয়েছেন সহানুভূতির হাত, এবং ট্রলকারীদের করেছেন নিন্দা। জর্জিয়ার ওই পোস্টে গিয়েও অনেকে করেছেন ক্ষমাপ্রার্থনা। ইতোমধ্যে নিজের পোস্টের কমেন্ট সেকশন ‘সীমিত’ করে দিয়েছেন জর্জিয়া।

এদিকে ট্রলকারীদের উদ্দেশ্যে কঠিন কিছু বাক্য ছুঁড়ে দিয়েছেন ব্যাঙ্গালুরুর ব্যাটসম্যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

“আরসিবির জন্য এটি অসাধারণ একটি মৌসুম ছিল। হ্যাঁ শেষপর্যন্ত আমরা পারিনি। কিন্তু কিছু আবর্জনা যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে তা সত্যিই জঘন্য। আমরাও মানুষ, যারা প্রতিদিন নিজেদের সেরাটা দিতে চেষ্টা করি। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিছু জঘন্য মানুষ রয়েছে যারা ধীরে ধীরে জায়গাটিকে জঘন্য বানিয়ে দিচ্ছে। এটি মেনে নেওয়া যায়না”- বলেছেন ম্যাক্সওয়েল

এমনিতে ম্যাচ হারার পর খেলোয়াড়দের পরিবারের ওপর আক্রমণ উপমহাদেশে নতুন কিছু নয়, তবে এবার বাইরের ক্রিকেটাররাও উপমহাদেশের ক্ষুব্ধ সমর্থকদের রোষের স্বাদ পেলেন।

 

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img