৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার

অপ্রতিরোধ্য নেইমার; পেরুর জালে ব্রাজিলের গোল চারটি

- Advertisement -

কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় ম্যাচেও বড় জয় পেলো ব্রাজিল। পেরুর সাথে ৪-০ গোলে জেতে নেইমারের দল। স্যান্দ্রো, নেইমার, রিবেইরো ও জোগ করা অতিরিক্ত সময়ের তৃতীয় মিনিটে রিচার্লিসনের গোলে ম্যাচ জেতে ব্রাজিল।

আগের ম্যাচে আর্জেন্টিনা যে মাঠে খেলতে নেমেছিলো সেই স্তাদিও নিলটন সান্তোসে শুক্রবার ভোরে পেরুর সাথে খেলতে নামে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা না পারলেও এদিন হালি গোলের ব্যাবধানে ম্যাচ পকেটে নেয় সেলেসাও রা। ম্যাচে প্রথম গোল পেতে ১২ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় ব্রাজিলকে। এভারটনের ক্রস পেরুর বক্সে পরলে ক্লিয়ার করতে ব্যার্থ হয় পেরু ডিফেন্স। বল ম্যানসিটি স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুসের পায়ে এলে নিজে গোলে শট না নিয়ে স্যান্দ্রো কে বাড়ান; এই জুভেন্তাস লেফট ব্যাক জোড়ালো শটে ব্রাজিলকে লিড এনে দেয়। প্রথমার্ধের বাকি সময় ব্রাজিল আরও আক্রমন চালালেও পেরু তাদের রক্ষন সামলে আর কোনো গোল হজম করেনি।

প্রথমার্ধে পারলেও বিরতির পর ব্রাজিলের গোলবন্যা আর আটকাতে পারেনি পেরু। ৬৮ মিনিটে, নেইমারের গোলবারের ২০ গজ দূর থেকে নেয়া শটে দারুন এক গোল পায় ব্রাজিল। নেইমারের অসাধারণ গোলের এসিস্টে ছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মিডফিল্ডার ফ্রেড।  নতুন চুলের স্টাইল নিয়ে মাঠে নামলেও নেইমার ছিলেন পুরানো অপ্রতিরোধ্য ফর্মে। শেষ ৫ ম্যাচে এদিন নিজের ৭নম্বর গোল করেন ব্রাজিল অধিনায়ক। এই গোলে ২৯ বছর বয়সী পিএসজির এই খেলোয়াড় আন্তজার্তিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোল সংগ্রাহকদের তালিকায় ২০ নম্বরে উঠে এলেন। ব্রাজিল তাদের সর্বশেষ ৪ ম্যাচেই কমপক্ষে ২টি কর গোল দেয়। পেরুর সাথে সর্বশেষ ম্যাচে ব্রাজিল করে ৪ গোল। সেই ম্যাচের কথা মনে করেই কিনা কেজানে এদিনও শেষের ৫ মিনিটে ব্রাজিল দিয়েছে গোল। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামা রিবেইরো গোল করেন ৮৯ মিনিটে। ব্রাজিলের জার্সিতে  এটিই প্রথম গোল ফ্লামেঙ্গো তারকার। আর পেরুর কফিনে শেষ পেরেকটি মারেন রিচার্লিসন। পেরুর গোলকিপার পেদ্রো জেলেসে ফিরমিনোর শট প্রতিহত করলেও রিচার্লিসনের ফিরতি শট আর আটকাতে পারেননি। ফলে ঘরের মাঠে ৪-০ এর বড় ব্যাবধানেই ম্যাচ শেষ করে ব্রাজিল।

কোপা আমেরিকার এবারের আসর নিয়ে আলোচনা সমালোচনার কোনো শেষ নেই। প্রতিদিনই নতুন নতুন খেলোয়াড় কর্মকর্তারা আক্রান্ত হচ্ছেন কোভিডে। তবে এতসবের ভিড়েও যে ব্রাজিল খেলোয়াড় রা চাননি তাদের দেশে কোপা হোক তারাই নিজেদের কাজটি সবচেয়ে ভালো করছেন। প্রথম ম্যাচে ৩টির পর এই ম্যাচে চারটি গোল দিয়ে ব্রাজিল কোয়াটার ফাইনালে এক পা দিয়েই রাখলো যেনো।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img