২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার

অভিজ্ঞদের কাছে আরো রানের প্রত্যাশা করেন ব্যাটিং কোচ

- Advertisement -

প্রথম ওয়ানডেতে ১৩১ রানের অলআউট হওয়ার পর তামিম বলেছিলেন বাংলাদেশ এতো কম রান করার দল নয়। দ্বিতীয় ম্যাচে এসে সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। ২৭১ রান লড়াই করার মতো পুঁজি ছিল। কিন্তু বাংলাদেশ তিনশো রানও করতে পারতো যদি শুরুর দিকে রানের গতিটা একটু বেশি থাকতো। বাংলাদেশ পাওয়ার প্লেতে করেছিল মোটে ২৬ রান। যেখানে নিউজিল্যান্ড তার দ্বিগুন রান করে প্রথম দশ ওভারে। তবে ক্রাইস্টচার্চে তামিমদের ব্যাটিং উন্নতিতে আশাবাদী বাংলাদেশ ব্যাটিং কোচ জন লুইস। শেষ ম্যাচে মুশফিক-তামিমদের কাছে আরো রান চান তিনি, ভয়ডরহীন খেলার পরামর্শ দিয়েছেন এই ব্যাটিং কোচ। শুক্রবার সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড, খেলা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় ভোর চারটায়। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ মাধ্যমে কথা বলেছেন জন লুইস-

“ক্রাইস্টচার্চে আমাদের ব্যাটিংয়ের বেশ ভালো উন্নতি হয়েছে। ম্যাচে এগিয়ে থাকতে অনুশীলনে মনোযোগ দিতে হবে। টস হারাটা বড় একটা ফ্যাক্ট, কারণ দিনের শুরুতে বোলারদের জন্য বেশ ভালো সুবিধা থাকে। ক্রাইস্টচার্চে লড়াইয়ের জন্য বেশ ভালো উইকেট ছিল। ছেলেরা চেষ্টা করছে, হয়তো পর্যাপ্ত না, তবে অনুশীলনে তারা বেশ মনোযোগী।”

“বড় ব্যাপার হচ্ছে উইকেটে বাউন্স আছে, নতুন বলে বেশ ভালো বোলার আছে। তামিম স্কোয়াডের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। দ্বিতীয় ইনিংসে কাউকে ভিত্তি গড়ে দিতে হবে, এটা বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মোহাম্মদ মিঠুন ক্রাইস্টচার্চে অসাধারণ খেলেছে। ও অফ সাইডে বেশি খেলার চেষ্টা করেছে, তবে লেগ সাইডও একটা অপশন, আমাদের মনে হয় সে এটা পারবে, কারণ ঢাকা এবং চট্টগ্রামে্র থেকে নিউজিল্যান্ডের উইকেটে বাউন্স বেশি।”

“নতুন বলে ভালো করা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ডানেডিনে বোলিংয়ের জন্য ভালো কন্ডিশন ছিল। ট্রেন্ট বোল্ট, হ্যানরি ভয়ংকর হয়ে উঠেছিল। প্রথম দশ ওভার উইকেটে থাকা গুরুত্বপূর্ণ, শেষের দিকে সেই সাহসটা ব্যাটসম্যানরা পাবে। যদি শুরুর দিকে পয়ত্রিশ-চল্লিশ রান করা যায় তবে সেটা দলের জন্য ভালো। আমরা পঞ্চাশ রানের মধ্যেই দুই তিন উইকেট হারিয়ে ফেলছি, যেটা নিউজিল্যান্ডকে ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ নিতে সাহায্য করছে। ক্রাইস্টচার্চে দেখেছি সৌম্য এবং তামিমের পারফর্মেন্স কিভাবে বাংলাদেশকে বড় একটি সংগ্রহের দিকে নিয়ে গেছে।”

“আগামীকাল বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করবে বা পরে, সেটা তেমন প্রভাব ফেলবে না, প্রথমে ব্যাট করলে ভাবনায় রাখতে হবে নতুন বল কি করতে পারে। ওদের ট্রেন্ট বোল্ট আছে, দুর্দান্ত পারফর্ম্যান্স করছে। সে যাতে সুবিধা না পায় সেই চেষ্টাই করতে হবে। যদি পরে ব্যাটিং করতে হয় তবে তাদের যতো কমে আটকানো যায় সেই চেষ্টাই করতে হবে, যদি নিজিল্যান্ডের রান বেশি হয় তবে পাওয়ার প্লের সুযোগ নিতে হবে, শট খেলার চেষ্টা করতে হবে।”

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img