NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
৮ আগস্ট ২০২২, সোমবার

অসাধারণ লোকাতেলি; ইউরোর পরের রাউন্ডে ইতালি

- Advertisement -

ইউরোতে দ্বিতীয় ম্যাচেও প্রতিপক্ষের জালে ৩ গোল দিলো ইতালি। ২৬ ও ৫২ মিনিটে লোকাতেলির রেকর্ড দুই গোল এবং ম্যাচের অন্তিমে; ৮৯ মিনিটে ইমোবেলের গোলে ইউরোর কোয়াটার ফাইনাল নিশ্চিত করে ইতালি। ক্লিনিকাল ইতালির সামনে এদিন পাত্তাই পায়নি শাকা, শাকিরিদের সুইজারল্যান্ড।

ইউয়েফা ইউরোর চলতি আসরে “এ” গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ১৭ জুন বুধবার মাঠে নামে ইতালি ও সুইজারল্যান্ড। রোমার স্তাদিও অলিম্পিকোতে ১৬হাজার দর্শকের সামনে ফেভারিটের মতোই শুরু করে স্বাগতিক ইতালি। নিজেদের খেলার স্বাভাবিক ধরনে রক্ষন টাইট রেখে বারবার গোছালো আক্রমনে যায় আজ্জুরিরা।  আদায় করা নিজেদের প্রথম কর্নার থেকেই ইনসিনিয়ার ভাসানো শটে বাঁ পায়ে বল জালে জড়ান জর্জিও চিয়েলিনি। ভিএআর চেকে হ্যান্ড বলে বাতিল হয় সে গোল। যদিও সে হ্যান্ড ইচ্ছাকৃত ছিল কি না তা নিয়ে দ্যা ব্লুজ সমর্থকদের মনে সন্দেহ থেকেই যাবে। ইতালির জার্সিতে ২ বছর পর গোল করেও তা বাতিল হতে দেখেন চিয়েলিনি; কাকতালীয়ভাবে ২৬ মিনিটে চিয়েলিনির ইনজুরি তে মাঠ ছাড়ার ঠিক ২ মিনিট পরই ইতালির জার্সিতে নিজের ক্যারিয়ারের ২ নম্বর গোল করে ইতালিকে লিড এনে দেন সাসুয়েলো মিডফিল্ডার মানুয়েল লোকাতেলি। দারুন গোছানো আক্রমনে বক্সের ডান প্রান্ত থেকে দমেনিকো বেরার্দির পাঠানো বলে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকাতেলি পা ছুঁইয়ে গোল এনে দেন।

প্রথমার্ধের বাঁকি সময় বাঁ প্রান্ত দিয়ে বারবার আক্রমনে উঠলেও গোল পায়নি ইতালি। নিজেদের রক্ষনের সুনাম বজায় রেখে সুইজারল্যান্ডকে এই হাফে একটিও গোলে শট নিতে দেয়নি ইতালীয়রা। ১ গোলে এগিয়ে থাকার তৃপ্তি নিয়েই ড্রেসিং রুমে ফেরে রবার্তো মানচিনির শিষ্যরা।

 

দ্বিতীয়ার্ধে লিড দ্বিগুণ করতে ইতালি সময় নেয় ৭ মিনিট মাত্র। ক্লাব অথবা দেশের হয়ে প্রথম কোনো ম্যাচে ২ গোল করেন লোকাতেলি। এবারে বক্সের বাইরে থেকে জোড়ালো শটে সুইস গোলি ইয়ান সোমের কে দর্শক বানিয়ে বল জালে পাঠান “ইতালি নাম্বার ৫”। ম্যাচের ৬৩ মিনিটে বড় সুযোগ পায় সুইজারল্যান্ড।স্টিভেন জুবারের গোলে নেয়া শট ফিরিয়ে দেন ইতালি স্টপার দোনারুমা। ম্যাচে মিলান গোলকিপারের সেভ করতে হয় ওই একটিই। খেলা শেষের ঠিক আগে ম্যাচের ৮৯ মিনিটে পুরো ম্যাচ নিজের ছায়া হয়ে থাকা ইমোবলে ইতালির ৩ নম্বর গোল করেন। বক্সের বাইরে থেকে নেয়া তার এই শটে বল গোলের ডান প্রান্ত দিয়ে জাল ছোঁয়।যোগ করা ৩ মিনিটেও যথারীতি সুইসদের কোনো সুযোগই দেয়নি ইতালির ডিফেন্স। আবারও ৩-০ গোলে ম্যাচ জিতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে আজ্জুরিরা।

ছবিঃ ইন্টারনেট
ছবিঃ ইন্টারনেট

গত ৬০ বছরে প্রথমবার ২০১৮ এর বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করতে ব্যার্থ হয়েছিল ইতালি। এরপরেই নিজেদের বদলে ফেলে রবার্তো মানচিনির এই দলটা। সব ধরনের ম্যাচে কোনো গোল না খেয়ে ৩১ গোল করার রেকর্ড এখন দ্যা ব্লুজদের। ইউরোতে কখনো ৩ গোলের ব্যাবধানে ম্যাচ না জেতা ইতালি গত দুই ম্যাচেই করলো ৩টা করে গোল। ইউরোর ট্রফিতে চোখ দেয়া অন্য যেকোনো দলের জন্য সবচেয়ে বড় বাধাদের একটা যে ইতালি তা এখনি অনুমান করা যায়।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img