২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

আবারো ঢাকার ক্রিকেটের দায়িত্বে দুর্জয়, নতুন সাথী তানভীর টিটু

- Advertisement -

৬ অক্টোবর, বুধবার সকাল ১০টা থেকে উৎসবমুখর পরিবেশে শুরু হয়েছে বিসিবি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। একটানা বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ। ভোটগ্রহণ শেষে রাতেই জানানো হবে প্রাথমিক ফল।

বিসিবি নির্বাচনে এরইমধ্যে ৭ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছেন। তারা হলেন-আ জ ম নাসির ও আকরাম খান (চট্টগ্রাম বিভাগ), শেখ সোহেল এবং কাজী ইনাম (খুলনা বিভাগ), শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল (সিলেট বিভাগ), আলমগীর খান (বরিশাল বিভাগ) এবং অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম (রংপুর বিভাগ)।

ঢাকা বিভাগে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও খালিদ হোসেন ও আশফাকুল ইসলাম টিটু নির্ধারিত সময়ের পরে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় ঢাকা বিভাগে এখন শুধু নাম মাত্র নির্বাচন হবে। সেক্ষেত্রে বর্তমান পরিচালক ও জাতীয় দলের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাইমুর রহমান দুর্জয় এবং তানভির আহমেদ টিটুর (নারায়ণগঞ্জ) বিজয় নিশ্চিত।

উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে নির্বাচন

ঢাকা বিভাগে নামমাত্র নির্বাচন হলেও হাড্ডাহাড্ডি নির্বাচনের আভাস রয়েছে রাজশাহী বিভাগের নির্বাচনে। রাজশাহীত আগেরবারের বিনা ভোটে নির্বাচিত সাইফুল আলম চৌধুরী স্বপনের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট।

আরও একটি ক্যাটাগরিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে। সাবেক ক্রিকেটারদের ভোটে নির্বাচিত পরিচালকের পদে মুখোমুখি হয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও আগেরবারের পরিচালক গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটি চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন ও নামি কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম।

তবে নির্বাচনে সবার দৃষ্টি রাজধানী ঢাকার ক্লাব কোটার দিকে। সেখানে ৫৭ জন ভোটারের ভোটে নির্বাচিত হবেন ১২ জন। প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৬ জন। ১৬ জনের মধ্যেই একজন বিসিবির বর্তমান সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এই কোটা থেকে নতুনদের মধ্যে নির্বাচিত হতে পারেন
ফাহিম সিনহা এবং ওবেদ রশীদ নিযামদের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা।

এদিকে, সকাল থেকেই বিসবি প্রাঙ্গণে সকাল থেকেই বিভিন্ন প্রার্থীর সমর্থকেরা নিজ নিজ প্রার্থীর সমর্থনে ভিড় করেছেন। প্রার্থীরাও একে একে বিসিবিতে এসে খোঁজখবর নিচ্ছেন।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img