NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
৮ আগস্ট ২০২২, সোমবার

যখন ধোনির দিকে তাকালাম, সে বললো “আমি যাচ্ছি”: ফ্লেমিং

- Advertisement -

২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল চলাকালীন ড্রেসিংরুমে বসে মাঠে দলের অবস্থা দেখে প্যাড-আপ করে বসে থাকা যুবরাজ সিংয়ের বদলে নাকি নিজেই মাঠে নেমে যেতে কোচ গ্যারি কারস্টেনকে অনুরোধ করছিলেন তিনি। কোচ কারস্টেন খানিক দ্বিধা করে তাতে সায় দিয়েছিলেন, এবং এরপরই মহেন্দ্র সিং ধোনি সৃষ্টি করেন তাঁর সেই ৯১* রানের ইতিহাস; যা ভারতকে ২৮ বছর পর জিতিয়েছিল বিশ্বকাপ শিরোপা।

রবিবার দিল্লী ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংস ডাগআউটেও নাকি প্রায় একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে, এবং আবারো ঘটিয়েছেন আবারো সেই ধোনিই। এবার শুধু যুবরাজের বদলে নামার কথা ছিল রবীন্দ্র জাদেজার, কোচ গ্যারি কারস্টেনের বদলে ছিলেন স্টিফেন ফ্লেমিং। ধোনি এবারও আগে নামলেন এবং ৬ বলে ১৮* রানের ইনিংস খেলে দলকে তুললেন আইপিএলের ফাইনালে।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চেন্নাই কোচ স্টিফেন ফ্লেমিং নিজেই।

“আমি যখন তার (ধোনির) চোখের দিকে তাকালাম, সে বললো, “আমি যাচ্ছি”। সে এই কাজ অতীতেও করেছে এবং সফল হয়েছে। তাই আমি তাকে আটকাই নি, এবং ফলাফল আপনাদের সামনে”- বলেছেন ফ্লেমিং

এই জয়ের আগে টানা তিন ম্যাচ হেরেছে চেন্নাই, শেষ চারে ওঠা তাতে অনিশ্চয়তার মুখে পড়েনি ঠিক, তবে দল হিসেবে চেন্নাইয়ের আত্মবিশ্বাসে অবশ্যই ভাটা পড়ার কথা। এবং গতকালও রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও রবিন উথাপ্পার ১১০ রানের জুটির পর চেন্নাইয়ের হঠাৎ ব্যাটিং বিপর্যয়ে মনে হচ্ছিল, চাপেই ভেঙ্গে পড়েছে চেন্নাই। কিন্তু শেষ ওভারে ওয়াইড ডেলিভারি বাদে তিনটি চার মেরে ধোনি উড়িয়ে দিলেন সব চাপ। তার এই ইনিংসের কল্যাণে এক মৌসুম পর আবারো ফাইনালে উঠেছে চেন্নাই।

“এটা আমাদের জন্য খুবই আবেগের মূহুর্ত ছিল। সে যতবার ব্যাট করতে নামে ততবার আমরা তাকে সাধুবাদ জানাই। কারণ আমরা জানি কি পরিমাণ প্রত্যাশার চাপ তার ওপর। এই জয়টা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল এবং অধিনায়ক আমাদের জন্য তা এনে দিয়েছেন”- বলেছেন ফ্লেমিং

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img