NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার

আহমেদাবাদে বোলারদের দিন

- Advertisement -

আহমেদাবাদে ভারত-ইংল্যান্ড চতুর্থ টেস্ট, শুধুই কি টেস্ট? এই টেস্টেই সাথেই জড়িয়ে আছে এশিয়া কাপ আর ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ; সিরিজ নির্ধারণও বড় ফ্যাক্ট। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ইংল্যান্ড। মোহাম্মদ সিরাজ, যখনই সুযোগ পেয়েছেন কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছেন, আহমেদবাদ টেস্টেও ব্যতিক্রম না। বুমরা নাই, ইংল্যান্ড ইনিংসের শুরুতেই মোহাম্মদ সিরাজ নিয়েছেন দুই উইকেট।

আগের তিন টেস্টের মতো আহমেদাবাদ টেস্টের প্রথম দিনেও স্পিনারদের দাপট। আক্সার প্যাটেলকে আপনি চাইলেই ভুলতে পারবেন না। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে আজকের চারটাসহ প্রথম পাঁচ ইনিংসে বাইশ উইকেট, তিনবার ইনিংসে পাঁচ উইকেট। অশ্বিন নিয়েছেন তিন, স্পিনারদের মধ্যে বাকি উইকেটটা সুন্দরের।

গেল কয়েকদিন ভারতের উইকেট নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। ট্রল, আর ট্রেন্ডিংয়ে বিরক্ত ভারতীয় ক্রিকেটাররা। অভিযোগটা বেশী ছিল সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটারদের। মাইকেল ভন থেকে কুক, আহমেদেবাদে দিবারাত্রির টেস্ট দুইদিনে শেষ হওয়ায় ভারতকে ছাড় দেয়নি কেউ। তবে চতুর্থ টেস্টে এসে বদলে গেছে প্রেক্ষাপট। মাইকেল ভনই বলছেন, কোনো অজুহাত নয়; বরং দোষ ব্যাটসম্যানদের।

জীবনে তো কতো হিসেবে-নিকেশ। ভালোকেই মাঝেমধ্যে প্রেক্ষাপট বানিয়ে দেয় গড়পড়তা। আহমেদাবাদে শেষ টেস্টে ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে স্টোকস পেয়েছেন ফিফটির দেখা, তবে ইনিংস বড় করতে না পারলে, ব্যাট হাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে না পারলে লাভ হয়না তেমন। তবুও স্টোকস ফিফটি প্রশংসা পেতে পারে, লরেন্সও সুযোগ তৈরি করেছিলেন; তবে ওই অর্ধশতক পর্যন্ত পৌঁছুতে পারেননি।

টেস্টে প্রথমবারের মতো বল হাতে ইংলিশদের ইনিংসের শুরুটা করেছেন বেন স্টোকস। তবে কাজের কাজটা করেছেন জেমস অ্যান্ডারসন। পাঁচ ওভার বল করেছেন, কোনো রান দেননি। নিয়েছেন গিলের উইকেট। ভারত দিনশেষের বেদনা ওই একটাই, স্কোরবোর্ডে রান বিশের খানিক বেশি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস:  ২০৫ (১ম ইনিংস) (স্টোকস ৫৫, লরেন্স ৪৬, সিরাজ ১৪-২-৪৫-২, প্যাটেল ২৬-৭-৬৮-৪, অশ্বিন ১৯.৫-৪-৪৭-৩, সুন্দর ৭-১-১৪-১)।

ভারত :  ২৪/১ (১ম ইনিংস) (রোহিত ৮*, পুজারা ১৫*; অ্যান্ডারসন ৫-৪-০-১)।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img