৬ অক্টোবর ২০২২, বৃহস্পতিবার

ইউয়েফা নেশনস লিগের ফাইনালে প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি কেউই

- Advertisement -

সান সিরোতে ফাইনাল ম্যাচ শুরু হয়েছে প্রায় ছয় মিনিট; বক্সের বাইরে দাড়ানো পল পগবার পায়ে বল। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকার পা থেকে স্পেনের রক্ষণভাগকে ফাঁকি দিয়ে বলটা পৌছে করিম বেনজেমার পায়ে; সামনে তখন শুধুই স্প্যানিশ গোলকিপার উনাই সিমোন। নিশ্চিত গোল থেকে শুধু একটা টাচ দুরত্বে রিয়াল মাদ্রিদ ক্যাপ্টেন।

গোলকিপারকে একা পেয়েও গোল করতে পারেন নি বেনজেমা

বেনজেমার পা থেকে যে গোলটা শেষঅব্দি আসেনি, সেটা শিরোনাম দেখলেই অনুমান করা যায়।আতোঁয়া গ্রিজম্যানের শততম ম্যাচে প্রথমার্ধ শেষে গোলের দেখা পায়নি কেউই। বেশ কিছু সুযোগ তৈরী করলেও কাজের কাজটা করতে পারেনি কিলিয়ান এমবাপ্পে-বেনজামারা। সময়ের সাথে সাথে খেলায় যতোই আক্রমণ বাড়িয়েছে ফ্রান্স, ততোই রক্ষণাত্মক খেলেছে স্পেন। পাল্টা আক্রমণে বেশ কয়েকবার ফ্রান্সের গোলকিপারকে পরাস্ত করার সুযোগ পেলেও, স্পেন পারেনি সুযোগগুলোর সঠিক ব্যবহার করতে।

প্রথমার্ধের শেষে মাঠ থেকে বেড়িয়ে যেতে হয়েছে ভারানেকে

একবার অবশ্য রাফায়েল ভারানের কল্যাণে পেনাল্টিই পেতে বসেছিলো অজেয় ইতালিকে হারিয়ে ফাইনালে পৌছানো স্পেন; কিন্তু ভেএআর পর্যবেক্ষণ করে পেনাল্টি দেয়ার মতো কিছুই খুঁজে পেলেন না ম্যাচ রেফারি; ম্যাচের তখন ত্রিশ মিনিট পেরোতে চলেছে মাত্র। প্রথমার্ধ শেষের কয়েক মিনিট পূর্বে হঠাৎ করেই মাঠে বসে পড়েন ভারানে, চোখমুখজুড়ে অন্ধকার। দৌড়ে এলেন রেফারি, সাথে চিকিৎসকেরাও। ভারানে সময় নিলেন না, হয়তো ততোক্ষণে নিজেও বুঝে গেছেন ফাইনালে আর মাঠে থাকা হচ্ছে না তার! বাধ্য হয়েই দিদিয়ের দেশমকে আনতে হয়েছে একাদশে পরিবর্তন। ভারানের পরিবর্তে মাঠে দায়োত উপামেকানো।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img