২৩ এপ্রিল ২০২৪, মঙ্গলবার

ইএসএল সাইক্লোনের মাঝেই মরিনিয়ো ঝড়

- Advertisement -

নিজেকে তিনি দাবি করেন ‘স্পেশাল ওয়াল’, তবে ১৭ মাস ধরে টটেনহ্যাম হটস্পারের  দায়িত্বে থাকার পরেও তেমন কোনো সাফল্যের দেখা পাননি। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে বরখাস্ত হওয়ার পর  ২০১৯ সালের নভেম্বরে চার বছরের চুক্তিতে টটেনহ্যামের দায়িত্ব নেন জোসে মরিনিয়ো। তবে তাকে থামতে হলো মাঝপথেই। পুরো কোচিং স্টাফসহ তাকে বরখাস্ত করেছে হটস্পার ম্যানেজম্যান্ট।

গেল মৌসুমে টটেনহ্যাম ছিল ছয় নম্বর পজিশনে, এবার অবস্থা আরও বাজে, আছে পয়েন্ট টেবিলের সাত নম্বরে। গেল মার্চেই ক্রোয়েশিয়ার ক্লাব দিনামো জাগরেবের বিপক্ষে হেরে ধাক্কা খেয়েছিল টটেনহ্যাম, দুই লেগের লড়াইয়ে হেরে  বিদায় নেয় তারা। তবে এতসব ব্যর্থতা কিংবা সফলতার হিসেব না, মরিনিয়োকে বিদায়ের কারণ হিসেবে অনেকে দেখ ইউরোপিয়ান সুপার লিগকে।

ইএসলেরর ঘোষণা আসার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে এলো এমন সিদ্ধান্ত। আগামী ২৫ এপ্রিল লিগ কাপের ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হওয়ার কথা টটেনহ্যামের। তার আগেই এমন ঘটনায় বেশ আলোচনায় মরিনিয়ো । টটেনহামের সাবেক ইংলিশ মিডফিল্ডার জেমি ও’হারার ধারনা গত লিগ মৌসুমে অ্যামাজন প্রাইমের সঙ্গে প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণে মরিনিয়োকে কাজে লাগানো হয়েছে।

কে আর থেকেছে চিরকাল?। ছবি: সংগৃহীত

অভিযোগের তীর টটেনহ্যামের দিকে থাকলেও, ক্লাবটি থেকে আন্তরিক শব্দেই বিদায় জানানো হয়েছে আটটি ক্লাবে দায়িত্ব পালন করা মরিনিয়োকে। ড্যানিয়েল লেভি  ক্লাবের কঠিন সময়ে পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছে ইন্টারের হয়ে ২০০৯-১০ মৌসুমে ট্রেবল জেতা এই কোচকে।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img