৭ ডিসেম্বর ২০২২, বুধবার

ইজরাইলের মাটিতে বার্সেলানোর ম্যাচ বাতিল!

- Advertisement -

লা লিগার নতুন মৌসুম শুরুর আগে ইজরাইলি ক্লাব বেইতার জেরুজালেমের সাথে ইজরাইলে প্রাক মৌসুম ফ্রেন্ডলি ম্যাচ খেলার কথা ছিল বার্সেলোনার। স্প্যানিশ জায়ান্টদের জেরুজালেমে খেলতে আপত্তি থাকার কারনে বাতিল হয়েছে সেই ম্যাচ।

বেইতার জেরুজালেমের নিজেদের মাঠ টেডি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল অগাস্টের ৪ তারিখ। ম্যাচের তারিখ ঘোষনার পরই ফিলিস্তিনি সংগঠনগুলো বার্সেলোনাকে বর্জনের ডাক দিতে থাকে এবং আবেদন জানায় বার্সেলোনা যেন  ম্যাচটি না খেলে। ফিলিস্তিনের মানুষের আরও একটি ক্ষোভের কারন টেডি স্টেডিয়ামের অবস্থান; জেরুজালেমের দক্ষিন প্রান্তে অবস্থিত টেডি স্টেডিয়ামের কাছেই বেশ কিছু আরব মুসলিম পরিবার অত্যাচারের শিকার হয়, তাই বার্সেলোনার মতো ক্লাবের ওই মাঠে খেলা মেনে নিতে পারেনি ফিলিস্তিনি সমর্থকেরা।

বিক্ষোভের মুখে বার্সেলোনা বেইতার জেরুজালেম ক্লাব কতৃপক্ষের কাছে ভেন্যু পরিবর্তনের আবেদন জানালে ম্যাচটিই বাতিল করে দেন বেইতার জেরুজালেমের মালিক মোশে হোগেগ। এক বিবৃতিতে হোগেগ বলেন, “যখন আমি ভেন্যু পরিবর্তন সহ আরও কিছু চাহিদা লিখা চুক্তিপত্র হাতে পেলাম তখন আমার সেটা পছন্দ হয়নি, আমি দুঃখ নিয়ে রাতে ঘুমিয়েছি এবং অনেক চিন্তা করে ম্যাচটি বাতিল করেছি, কেননা সর্বপ্রথম আমি একজন ইহুদী এবং একজন গর্বিত ইজরায়েলী”

বেইতার জেরুজালেম ক্লাবটি ইজরাইল প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ছয়বার, তবে আরব বিদ্বেষী ক্লাব হিসেবেই এর পরিচিতি বেশি। ২০১৩ সালে দুজন মুসলিম খেলোয়াড় কেনায় ক্লাবের অফিসে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছিল উগ্র সমর্থকেরা, ম্যাচ চলাকালীন সময়ে এই দলের সমর্থকেরা আরব দের মৃত্যু কামনার ধ্বনিও তোলে মাঠে। অর্থনৈতিক দৈন্যর ভেতর দিয়ে যাওয়া বার্সেলোনার সাথে বেইতার জেরুজালেমের ম্যাচ বাতিল হওয়া তাই বেশ আলোচনার সৃষ্টি করেছে।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img