NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার

ইনজুরিতে শেষ স্পিনাজোলার ইউরো

- Advertisement -

শুক্রবার বেলজিয়ামকে ২-১ গোলে হারিয়ে ইউয়েফা ইউরো ২০২০ এর সেমিফাইনালে উঠেছে ইতালি। ইতালির এই সাফল্য যদি মুদ্রার এক পিঠ, তবে অন্য পিঠে আছে লিওনার্দো স্পিনাজোলার ইনজুরি। গোড়ালির রগ ফেটে যাওয়ায় স্পেনের বিপক্ষে সেমিফাইনালে ইতালিয়ান উইংব্যাককে পাবেন না রবার্তো মানচিনি।

চলতি ইউরোতে দুর্দান্ত খেলছে ইতালি। এখন পর্যন্ত কোনো ম্যাচ হারেনি, জিতেছে সবগুলোতেই। ৫ ম্যাচে ১১ গোল করার বিপরীতে খেয়েছে মাত্র দুইটা। সবধরনের ফুটবলে ৩২ ম্যাচ অপরাজিত ইতালি, ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে বাছাইপর্বসহ শেষ ১৫ ম্যাচেই জিতেছে রবার্তো মানচিনির দল। ইতালির অশ্বমেধের ঘোড়ার অন্যতম প্রধান সওয়ারী লিওনার্দো স্পিনাজোলা। তাকে হারিয়ে নিশ্চই স্বস্তিতে নেই ইতালিয়ানরা।

শুক্রবার বেলজিয়ামের বিপক্ষে ম্যাচের তখন ৭৮ মিনিট। মাঠের বাঁপ্রান্তে থর্গান হ্যাজার্ডের সঙ্গে বলের পিছনে দ্রুতগতিতে ছুটছিলেন স্পিনাজোলা। তখনই আচমকা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন স্পিনাজোলা। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট তাকে ছিটকে দিচ্ছে।  পরবর্তীতে জানা যায়, তার গোড়ালির রগ ফেটে গেছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের ধারনা, এক বছরের জন্য মাঠের বাইরে চলে যেতে পারেন স্পিনাজোলা। আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় পাওয়া চোটের কারনে এবছর তাকে মাঠে নাও দেখা যেতে পারে।

২৮ বছর বয়সী রোমা উইংব্যাক স্পিনাজোলা চলতি ইউরোর অন্যতম সেরা খেলোয়াড় । চলতি ইউরোর সবচেয়ে গতিশীল ফুটবলার স্পিনাজোলা। ইউরোতে  ইতালিয়ান নাম্বার ফোর ঘন্টায় প্রায় ৩৩.৮ কি.মি. বেগে দৌড়েছেন ।  এখন পর্যন্ত দুটো ম্যাচে জিতেছেন ‘স্টার অফ দ্য ম্যাচ’ পুরস্কার। এই ইতালিয়ান উইংব্যাকের দুর্দান্ত পারফর্ম্যান্সের কারনে দলবদলের বাজারে তার দিকে নজর ছিল রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনার মতো বড় ক্লাবগুলোর। কান্নাভেঁজা চোখে স্ট্রেচারে করে যখন মাঠ ছাড়ছেন, নিশ্চই দলবদলের স্বপ্নে বিভোর হৃদয় কেঁপে উঠেছিল ইনজুরির গভিরতায়।

স্পিনাজোলার ইনজুরির রিপোর্ট বলছে, সম্পুর্ন সেরে উঠতে প্রায় ৩৪০ দিন সময় লাগবে। ইনজুরির সঙ্গে তার সখ্যতা যদিও বহুদিনের। জুভেন্তাস থেকে ধারে  আতালান্তায়  যাওয়ার পর ২০১৪-১৫ মৌসুমে মাঠে নামতে পেরেছিলেন মাত্র ২ ম্যাচ, ইনজুরির কারনে মাঠের বাইরে ছিলেন ১৫২ দিন! এছাড়াও, ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ইনজুরির কারনে মাঠের বাইরে ছিলেন ২৬০ দিন। এছাড়া    পুরো মৌসুমেই ফিট হতে ধুকেছেন স্পিনাজোলা। সদ্য শেষ হওয়া ক্লাব মৌসুমেও ইনজুরি তার সঙ্গেই ছিল। উরু এবং কাফ মাসলের চোটে মিস করেছেন সেরি-আ এর ১৭ ম্যাচ।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img