২ মার্চ ২০২৪, শনিবার

একটি টেস্ট উইকেটের জন্য ১৮ বছরের অপেক্ষা

- Advertisement -

তাবিশ খান, ক্রিকেটের প্রতি, নিজের স্বপ্নের প্রতি ভালোবাসা আর ধৈর্য্যের চূড়ান্ত পরীক্ষাটাই দিয়েছেন পাকিস্তানের এই মিডিয়াম পেসার। ১৮ বছরের প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ার, পারফর্ম করেছেন প্রায় নিয়মিত, অথচ পাকিস্তানের হয়ে সাদা জার্সিতে সুযোগটাই মিলছিল না। অবশেষে মিললো, নিজের প্রথম ওভারেই জিম্বাবুয়ের তারিসাই মুসাকান্দাকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে রেকর্ডও করে ফেললেন, গেল ৭০ বছরের ইতিহাস বলে, টেস্ট অভিষেকের প্রথম ওভারে উইকেট পাওয়া সবচেয়ে বয়স্ক ক্রিকেটার তাবিশ খান।

টেস্ট অভিষেকের আগেই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তাবিশ খানের উইকেট সংখ্যা ছিল ৫৯৮। করাচির এই ক্রিকেটারের জন্ম ১৯৮৪ সালের ১২ ডিসেম্বর। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে অভিষেক ২০০২-০৩ মৌসুমে। নিজ শহর করাচির হয়েই খেলেছেন ১৩৭ প্রথম শ্রেণির ম্যাচ। লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলেছেন ৫৮টি, টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ৪৩টি। কোনো ফরম্যাটের পারফর্ম্যান্সই একদম ফেলে দেওয়ার মতো না। তবু উপেক্ষায় কাটল ১৮ বছর।

উপেক্ষা, অবহেলার পরও থেমে থাকেননি তাবিশ খান ছবিঃ ইন্টারনেট
উপেক্ষা, অবহেলার পরও থেমে থাকেননি তাবিশ খান ছবিঃ ইন্টারনেট

প্রথম টেস্ট উইকেট পাওয়ার পর তাবিশ খানের উদযাপনেও প্রকাশ পেয়েছে আবেগ। হয়তো খুব স্বাভাবিক। একটি টেস্ট উইকেটের জন্য যে অপেক্ষা করতে হয়েছিল ১৮ বছর। প্রথম টেস্ট উইকেট পাওয়ার আগে এশিয়ান দলগুলোর ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উইকেটও তাবিশ খানের।

সুযোগ না পেতে পেতে, অবহেলায় জর্জরিত তাবিশ খানের অবস্থা এমন ছিল যে জাতীয় দলে ডাক পাওয়া বিশ্বাস করতে পারেননি তার মা, ভেবেছিলেন রসিকতা। তবে তাবিশ খানের দলে ডাক পাওয়া, টেস্ট দলে সুযোগ পাওয়া কিংবা উইকেট পাওয়া, কোনোটাই রসিকতা নয় বরং বলতে হয় রুপকথা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img