NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৪ আগস্ট ২০২২, রবিবার

এবার ওয়ানডে ফরম্যাটে হবে ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ’

- Advertisement -

এমনিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল) হয় চারদিনের ‘ফার্স্ট ক্লাস’ ফরম্যাটে। এবং স্পন্সর ফ্র্যাঞ্চাইজি মিলিয়ে বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে বাংলাদেশের সবচেয়ে পেশাদার লীগ বলা হয় এই টুর্নামেন্টকে। তবে বৃহস্পতিবার মিরপুরের বিসিবি কার্যালয়ে বিসিএল সংক্রান্ত মিটিং শেষ করে বাইরে এসে গণমাধ্যমকে জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন জানালেন, এবার ফরম্যাটে বদল আসতে যাচ্ছে এই টুর্নামেন্টের। ফার্স্ট ক্লাসের বদলে ‘লিস্ট এ’ বা ওয়ানডে ফরম্যাটে আয়োজন করা হবে বিসিএল।

“এবার বিসিএলটা আমরা ওয়ানডে চিন্তা করেছি। যেহেতু ওয়ানডে কোন খেলা নাই (ঢাকা) প্রিমিয়ার লিগের আগে। সামনে বিপিএল আছে জন্য সময়ও আমাদের হাতে বেশি নেই। একারণেই ওয়ানডে ফরম্যাটে খেলা হবে”- বলেছেন সুজন

গণমাধ্যমের সামনে কথা বলছেন খালেদ মাহমুদ সুজন

ডিসেম্বরের শেষদিকে অথবা জানুয়ারী মাসের শুরুর দিকে এই টুর্নামেন্ট মাঠে গড়াবে। ‘সিঙ্গেল লিগ’ পদ্ধতিতে দলগুলো একে অপরের সাথে খেলবে এবং পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল ফাইনালে যাবে বলে জানিয়েছেন সুজন।

তবে এই টুর্নামেন্টে জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা খেলতে পারবে কিনা সেটা নিয়ে সন্দেহ আছে। কারণ ডিসেম্বরে টাইগাররা যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড সফরে এবং ভিন্ন ভিন্ন ফরম্যাটের সিরিজ ছাড়াও বায়োবাবল-টাবল মিলিয়ে বেশ লম্বা একটা সময়ই দেশের বাইরে থাকবে তারা। সুজনের ভাষ্যমতে টুর্নামেন্টের আয়োজনে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের দিকে তাকিয়ে থাকার কোন সুযোগ নেই।

“ন্যাশনাল টিমের কথা চিন্তা করলে তো দেশের খেলাই হবে না। ন্যাশনাল টিমের খেলোয়াড়রা সারাবছর ব্যস্ত সূচী পার করে। ওদের জন্য তো আর ঘরোয়া ক্রিকেট থেমে থাকবে না। ওরা যদি না খেলতে পারে ওদের ছাড়াই হয়তো খেলা হবে।”

জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ঘরোয়া ক্রিকেটে অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করতে বহুদিন থেকে বোর্ড কর্মকর্তাদের ক্রমাগত বলে আসা হচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেটে একটি নির্দিষ্ট ‘ক্যালেন্ডার’ তৈরি করার কথা, যেসময় জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা ফ্রি থাকবেন ও এই আসরসমূহে খেলবেন। এই চর্চা বিশ্বের বাকি সব দেশই অনুসরণ করে। এই সংক্রান্ত প্রশ্ন আজও করা হলো সুজনকে। জবাবে সুজন বললেন, ক্যালেন্ডার নাকি আছে বিসিবির! তবে সেটি ‘অঘোষিত’ ক্যালেন্ডার!

“ক্যালেন্ডারের কথা তো আজকে থেকে না, অনেকদিন থেকেই উঠছে। তবে আমাদের ক্যালেন্ডার নাই তা না। ‘ইনএনাউন্সড’ ক্যালেন্ডার ঠিকই আছে যেটা দেখে বোর্ড সময়সূচী নির্ধারণ করে। আমরা টি-টোয়েন্টি বেশি খেলিনা তাই টি-টোয়েন্টিতে উন্নতির জন্য বিপিএলে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের উপস্থিতির ওপর বেশি জোর দেই। তবে ওয়ানডে ও টেস্ট ফরম্যাটে তো জাতীয় দলের সারাবছরই খেলা থাকে। ওদের রাখার জন্য ঘরোয়া টুর্নামেন্ট আটকে রাখতে গেলে দেশের এতোগুলা ছেলে তো বঞ্চিত হবে।”

 

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img