১০ ডিসেম্বর ২০২২, শনিবার

কোপার ফাইনালে ব্রাজিল, মারাকানায় ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ কে?

- Advertisement -

কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে পেরুকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ব্রাজিল। গ্রুপ পর্বে ৪-০ গোলে হারানো পেরুকে এদিন ১-০ গোলে হারায় ব্রাজিল, ব্রাজিলের হয়ে একমাত্র গোল করেন লুকাস পাকুয়েতা।

কোপা আমেরিকায় ঘরের মাঠে ফাইনাল নিশ্চিতের মিশনে নিলতন সান্তোসে পেরুর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোর পাঁচটায় মাঠে নামে ব্রাজিল। পেরুর বিরুদ্ধে কোচ তিতে কোয়ার্টারের মতোই ৪-২-৩-১ ফরমেশন মাঠে নামান,আগের ম্যাচে লাল কার্ড খাওয়া গ্যাব্রিয়েল জেজুসের যায়গায় এদিন মূল একাদশে সুযোগ পান বেনফিকা উইংগার এভারটন। পেরুও, গ্রুপ পর্বে ব্রাজিলের সাথে তাদের কৌশল পরিবর্তন করে এদিন ৪-৫-১ ফরমেশনে দল মাঠে নামায়।

 

খেলার প্রথম মিনিট থেকেই ব্রাজিল ফেভারিটের মতোই খেলতে থাকে। খেলার বয়স ১০ মিনিট হওয়ার আগেই পেরুর বক্সের দখল নেয় ব্রাজিল,  ৮ মিনিটের নেইমারের সেই প্রচেষ্টা ডান পোষ্টের বাইরে দিয়ে গেলে গোল বঞ্চিত হয় ব্রাজিল।

প্রথম সুযোগের মিনিট পাঁচেক পরেই ক্যাসেমিরোর জোড়ালো শট যায় পেরু গোলকিপার বরারব, গোলকিপার পেদ্রো গ্যালাস সেই বল ধরে ফেলেন সহজেই। ১৩ মিনিটের পর ১৫ আর ১৯ মিনিটেও পেরুর গোলের দরজায় টোকা পড়ে ব্রাজিলের, ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিটেই গ্যালাসের প্রচেষ্টায় অন্তত তিনবার গোল খাওয়া থেকে বেঁচে যায় পেরুইয়ানরা।

 

ম্যাচের ডেডলক ভাংতে সময় লাগে ৩৫মিনিট নেইমার-পাকুয়েতা জুটি এগিয়ে নেয় ব্রাজিলকে। বামদিক ধরে আক্রমণে ওঠা ব্রাজিলকে আর আটকাতে পারেনি পেরু। একা দাঁড়িয়ে থাকা পাকুয়েতাকে খুজে নেয় নেইমারের ক্রস, নেইমারের ক্রস থেকে বল বানিয়ে নিয়ে গ্যালাসকে হারিয়ে ব্রাজিলকে প্রথম গোল এনে দেন লিঁও ফরোয়ার্ড লুকাস পাকুয়েতা। ব্রাজিলের গোলে কোনো শট ছাড়াই পেরু প্রথমার্ধ শেষ করে।

 

বিরতির পর ব্রাজিলের গোলকিপার এডারসন মোরায়েসের খেলায় নিজের উপস্থিতি জানান দেয়ার সময় আসে, ৪৯ মিনিটে পেরুর একমাত্র ফরোয়ার্ড জিয়ানলুসা লাপাদুলার শট ক্লিয়ার করেন এডারসন। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১৫মিনিটেই পেরু অন্তত ৩বার গোলের খুব কাছে পৌঁছে যায়,এডারসনের দুই সেভের সাথে ৫৩ মিনিটে পেরু মিডফিল্ডার র‍জিয়েল গার্সিয়ার শট গোলের বাইরে দিয়ে গেলে বিপদ ঘটেনি ব্রাজিলের।

প্রথমার্ধের পুরোটা সময় পেরুর ডিফেন্সকে ব্যাস্ত রাখার পর দ্বিতীয়ার্ধে পেরুর বক্সে ব্রাজিল তেমন একটা তাদের উপস্থিতি জানান দিতে পারেনি, প্রথম ১৫ মিনিটের পর পেরুও তাদের শুরুর আক্রমণের ধার ধরে রাখতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের উত্তেজনার পারদ উপরের দিকে ওঠে ৭৩ মিনিটের খেলা পার হলে, পেরুর বক্সে রিচার্লিসন পড়ে গেলে পেনাল্টি চায় ব্রাজিল কিন্তু রেফারি কান দেননি সেই আবদারে।

খেলা শেষের মিনিট দশেক আগে পেরুর আলেক্সান্ডার ক্যালেন্স ম্যাচে ফেরার শেষ সুযোগ পান, ইয়োশিমার ইউতুনের ক্রস থেকে ক্যালেন্সের হেড ‘অফ টার্গেট’ গেলে সেই সুযোগও হারায় পেরু। ৩৫ মিনিটে পাকুয়েতার একমাত্র গোলে ১-০ স্কোরলাইন নিয়ে ম্যাচ শেষ করে ব্রাজিল।

কোয়ার্টারের পর সেমিফাইনালেও পাকুয়েতার একমাত্র গোলে ম্যাচ জেতে ব্রাজিল, তবে ১১তারিখের ফাইনালের আগে পরপর দুই ম্যাচে মাত্র একটা করে গোলের দেখা পাওয়া ভাবাবে ব্রাজিল-বস তিতেকে। তিতে চাইবেন ১১তারিখের ফাইনালে গোলখরা কাটাবে তার দল।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img