২৮ জানুয়ারি ২০২৩, শনিবার

ক্রিকেটকে এখনই বিদায় জানাচ্ছেন না ধোনি

- Advertisement -

ঘরের মাঠে চেন্নাই দল; গ্যালারী ভর্তি দর্শক। চিপক স্টেডিয়ামের বাইরে হাজারো মানুষের ভিড়। ‘ধোনি ধোনি’ শব্দে মুখরিত পুরো এলাকা। টেলিভিশনের সামনে গালে হাত দিয়ে মুখ ফুলিয়ে বসে লাখো জনতা। বাড়ির সবচেয়ে বৃদ্ধ মানুষটাও এসে বসেছেন টেলিভিশনের সামনে; কখন মাঠে পা দেবেন মহানায়ক! অবশেষে ৭ নম্বরের ঐ হলুদ জার্সিতে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে শেষবারের মতো মাঠে পা দিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি; পুরো স্টেডিয়াম জুড়ে তখন একটাই শব্দ, ‘ধোনি ধোনি’। স্টেডিয়ামে সাধারণ জনতাদের ভিড়ে শচীন টেন্ডুলকার, কপিল দেবদের মতো কিংবদন্তিরাও। মাঠে প্রথম পা টা দিয়ে একবার সূর্যটার দিকে তাঁকালেন ধোনি, শেষবারের মতোও কি?

এই দৃশ্য দেখার সাক্ষী আরও একবার হতে পারে চেন্নাইয়ের দর্শকেরা

জাতীয় দল থেকে অবসরটা আচমকাই নিয়েছেন; কিন্তু চেন্নাইয়ের হয়ে বিদায়টা ঘরের মাঠেই নিতে চান ভারতের সর্বকালের সেরা অধিনায়ক। তাই, বিদায়ের মুহুর্তটাকে একটু কল্পনা করার চেষ্টা করলাম আর কি! চেন্নাইয়ের হয়ে আগামী মৌসুমেও খেলবেন ধোনি, জানিয়েছেন নিজেই। চেন্নাইয়ের দর্শকদের বঞ্চিত করতে চান না নিজের বিদায়ের মুহুর্তটা থেকে। তাই ঘরের মাঠেই নিতে চান অবসর। সেইদিক থেকে ভাবলে আগামী মৌসুমের জন্য যেই তিনজন খেলোয়াড়কে রেখে দিতে চাইবে চেন্নাই তারা হলেন, ধোনি, রবীন্দ্র জাদেজা এবং ঋতুরাজ গায়কোয়াড়।

ঘরের মাঠেই বিদায় নেয়ার লক্ষ্য ধোনির

চেন্নাই সুপার কিংসের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে দীপক চাহার, ইমরান তাহির ও শার্দুল ঠাকুরের সঙ্গে লাইভে চেন্নাই অধিনায়ক এক ভক্তের প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, “আমি চাইলে অবসরটা এখনই নিয়ে নিতে পারি। কিন্তু, আমি চেন্নাইয়ের সমর্থকদের এই মুহুর্তটা থেকে বঞ্চিত করতে চাইনা। ঘরের মাঠে হলুদ জার্সি গায়েই শেষ ম্যাচ খেলতে নামবো, চেন্নাইয়ের দর্শকদের সামনেই

ধোনির কথাতেই স্পষ্ট অবসরটা যে নিচ্ছেন না এখনিই। পরের মৌসুমে ঘরের মাঠেই নিবেন অবসর। এর আগে ভারতীয় দলের পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img