NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৮ আগস্ট ২০২২, বৃহস্পতিবার

চার ম্যাচ পর জয়ের দেখা লিভারপুলের

- Advertisement -

পুরো ফেব্রুয়ারি মাসে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে একটা ম্যাচও না জেতা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল, চার পরাজয়ের হতাশা পিছনে ফেলে নতুন মাসের শুরুতেই জিতেছে, শেফিল্ড ইউনাইটেডকে তাদের মাঠেই হারিয়েছে, স্কোরলাইন দুই শূন্য।

পুরো ম্যাচে লিভারপুলের বল দখল, নিয়ন্ত্রণ কিংবা আক্রমণের ধারেকাছেও ছিল না শেফিল্ড। যদিও প্রথম হাফে গোলের দেখা পায়নি মোহাম্মাদ সালাহরা, যার মূল কৃতিত্ব শেফিল্ড ইউনাইটেড গোলকিপারের। কমপক্ষে চারটা নিশ্চিত সুযোগ একাই বাঁচিয়েছেন রামসডেল।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে লিড নেয় অল রেডস, গোল করেন কার্টিস জোনস। এই গোলে বড় অবদান রাইট ব্যাক ট্রেন্ট অ্যালেকজান্ডার আর্নল্ডের। ডান দিকের বাইলাইন থেকে তার নিখুঁত এবং মাপা ক্রস পেয়ে ফিরমিনোর দারুন ব্যাকহিল ফ্লিক, পেনাল্টি স্পটের কাছাকাছি বল পেয়ে যান আনমার্কড জোনস। তার কোনাকুনি শটে পরাস্ত হয় শেফিল্ড গোলকিপার রামসডেল।


৬৪ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সফরকারীরা। ডি-বক্সে ফিরমিনোর শট শেফিল্ড ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে জালে জড়ায়। শেষ দিকে ম্যাচের সবচাইতে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন মো সালাহ।রেলিগেশন জোনের শেফিল্ডকে হারিয়ে, ২৬ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ছয় নম্বরে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শেফিল্ডের সংগ্রহ ২৬ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট, টেবিলের সবচেয়ে নিচে।

 

লা লিগায় ভিয়ারিয়ালের সাথে প্রত্যাশিত জয়টাই পেয়েছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। টেবিলের সাতের সাথে শীর্ষের লড়াই। শিরোপার স্বপ্ন বুনতে থাকা আতলেতিকোর শক্ত পরীক্ষাই নেবে ভিয়ারিয়াল, এমন বিশ্লেষণ ছিল বোদ্ধাদের। মাঠের খেলায় অবশ্য আধিপত্য ধরে রেখে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে আতলেতিকো।

২০১৩-১৪ মৌসুমের পর ফের লা লিগা টাইটেল জেতার দাবিদার আতলেতিকো এগিয়ে যায় ম্যাচের ২৭ মিনিটে। প্রতিপক্ষের আক্রমণ সামলাতে গিয়ে পেদ্রাজা নিজের জালেই বল জড়িয়ে দিলে লিড পায় অতিথিরা।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে প্রতিপক্ষের হেড থেকে বল পান পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড জোয়াও ফেলিক্স, ডি-বক্সের বাইরে থেকে তার জোরালো শটে ব্যবধান দ্বিগুন করে সফরকারী দল, ততক্ষণে ম্যাচের পুরো নিয়ন্ত্রণে আতলেতিকো মাদ্রিদ।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে চেলসির বিপক্ষে হারসহ তিন ম্যাচ জয়শূন্য থেকে নেমেছিল আতলেতিকো। এই জয়ে আত্মবিশ্বাসের দুয়ার খুলবে নিশ্চিত। চলতি লা লিগায় সেরা রক্ষণের তকমা নিয়ে চলা দলটি ২৪ ম্যাচে মাত্র ১৬ গোল হজম করেছে।

 

সিরি আ’তে রোমার মাঠে গিয়েই জিতেছে এসি মিলান। খেলার শুরু থেকেই লড়াই চলছিলো সমানে সমান। ৪৩ মিনিটে রোমার ডিফেন্ডারদের ভুল থেকে পেনাল্টি পায় এসি মিলান, স্পট কিক থেকে দলকে লিড এনে দেয় ফ্রাঙ্ক ইয়ানিক।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই স্বাগতিকদের সমতায় ফেরান জর্ডান ভেরেতও। এর ৮ মিনিট পরেই ক্রোয়েশিয়ান উইঙ্গার আন্তে
রেবিচ অসাধারন এক শট থেকে লিড নেন এসি মিলান, রে বিচের ওই গোলটিই ছিল ম্যাচ নির্ধারক।

রোমাকে হারিয়ে টেবিল টপার এবং চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইন্টার মিলানের খুব কাছেই চলে গিয়েছে এসি মিলান। ২৪ ম্যাচে মিলানে পয়েন্ট ৫২, সমান ম্যাচে ইন্টারের সংগ্রহ ৫৬ পয়েন্ট। একই রাতে জেনোয়াকে তিন শূন্যে গোলে হারিয়ে ইতালিয়ান লিগের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ইন্টার মিলান।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img