২০ মে ২০২৪, সোমবার

“জিম্বাবুয়ে সিরিজ আর ডিপিএল খেলা নিয়ে আলোচনা খুবই অবান্তর”

- Advertisement -

জিম্বাবুয়ে সিরিজে প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি না খেলে ডিপিএল খেলবেন সাকিব আল হাসান-বিসিবি থেকে এ খবর জানানোর পর থেকেই সাকিবকে নিয়ে চলছে তীব্র সমালোচনা। এ মুহূর্তে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আছেন যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেই এক অনুষ্ঠানে সাকিব জানিয়েছেন, ঠিক কি কারণে ডিপিএল খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

“জিম্বাবুয়ে সিরিজে অবশ্যই খেলব। দেশে হয়তো এ নিয়ে একটা কনফিউশন চলছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এটা নিয়ে কথা চলছে যে আমি জিম্বাবুয়ে সিরিজে শুরু থেকে খেলব না, ডিপিএল খেলব। আসলে কোচ-অধিনায়ক সবার সঙ্গে আগে কথা বলে রেখেছিলাম। কোচ বলেছিলেন, দুটো ম্যাচ খেললেই হবে। এরপর অধিনায়ক ও নির্বাচকদের সঙ্গে কথা বলি, তারা বলেছে দুটো না তিনটা ম্যাচ খেলো, তাহলে আমাদের জন্য ভালো হয়। আমি বলেছি, সমস্যা নেই। এটাই সিদ্ধান্ত হয়েছে, যেটা নিয়ে দেশে এত কনফিউশন দেখতে পাচ্ছি। খুবই অবান্তর আলোচনা”-জানিয়েছেন সাকিব

নিজের খেয়াল খুশিমতো নয়, বরং সাকিব ডিপিএল খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কোচ-অধিনায়কের সাথে আলোচনা করেই। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আসলে এগুলো আলোচনার মাধ্যমেই হয়, আমার ইচ্ছামতো হয় না। যেহেতু ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দুটি ম্যাচ থাকবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ তিন ম্যাচ খেলার আগে। সেহেতু দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ থাকবে, এ ছাড়া প্রস্তুতিটাও ভালো হবে। সে কারণে আসলে এই দুইটা ম্যাচ খেলা।” 

দেশে থাকলে ব্যস্ততার কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুব বেশি থাকা হয় না সাকিবের। তবে দেশের বাইরে থাকায় ফেসবুকে বেশির ভাগ সময়ই ঢুঁ মারেন টাইগার অলরাউন্ডার। সাকিবকে নিয়ে অযৌক্তিক আলোচনায় তাঁর কাছে হাসির খোরাকই বটে, “আমেরিকা থাকলে ফেসবুকে বেশি সময় কাটানো হয়, দেশে থাকলে সময় পাই না। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এসব দেখলে আমার একটু হাসিই পায় যে মানুষ কত রকম চিন্তা করতে পারে। যা হয়েছে বিসিবি আর আমার আলোচনার মধ্যেই হয়েছে। কারণ, আমাদের অন্যান্য খেলোয়াড়দেরও দেখা জরুরি। বিভিন্ন ধরনের কম্বিনেশন তৈরি করতে হলে আমাদের কী অবস্থায় থাকতে হবে, সে প্রস্তুতিটা নিতে পারি।” 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img