২৩ এপ্রিল ২০২৪, মঙ্গলবার

টেস্টে ইংল্যান্ডের সেরা অধিনায়ক জো রুট!

- Advertisement -

সাফল্যের বিচারে টেস্টে ইংল্যান্ডের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক ধরা হয় মাইকেল ভনকে। যার অধীনে ৫১ টেস্ট ম্যাচ খেলে ২৬টাতে জিতেছিলো ইংলিশরা। কিন্তু জো রুটতো ছাড়িয়ে গেছেন ভনকেও। ভারতের বিপক্ষে চেন্নাই টেস্টসহ ৪৭ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছেন। নিজের শততম ম্যাচটা রাঙিয়েছেন রোমাঞ্চর জয়ে। ছুঁয়ে ফেলেছেন মাইকেল ভনকেও। রুটের অধীনে ইংলিশরা জিতল ২৬তম টেস্ট। তার মানে অগ্রজকেও ছাড়িয়ে গেলেন। চার ম্যাচ কম খেলেই ছুঁয়েছেন ভনের ম্যাচ জয়ের রেকর্ড। ইংল্যান্ডকে বিশের উপর টেস্ট ম্যাচ জিতিয়েছেন আরো দু’জন অধিনায়ক। অ্যালেস্টার কুক এবং অ্যান্ড্রু স্ট্রাউসের অধীনে ২৪টা করে টেস্ট জিতেছে ইংলিশরা। রুটের বয়স মাত্র ৩০ ছাড়িয়েছে। তার সাফল্যের তরী যেভাবে ছুঁটছে অবসরের সময় হলে হয়তো কিংবদন্তীতুল্য অধিনায়ক হয়ে যাবেন জো রুট।

চেন্নাই হতে পারেনি ব্রিজবেন, লেখা হয়নি কোন রূপকথা। কিংবা সিডনিতে হনুমা বিহারি ধৈর্য্যের যে পরীক্ষা দিয়েছিলেন এমন কেউ হতে পারেননি চেন্নাইয়ের উইকেটে। চেন্নাই টেস্টে ভারতকে জিততে হলে নতুন ইতিহাস লিখতে হতো। ৪২০ রানের লক্ষ্যটাকে ছুঁতে শেষ দিন তাদের দরকার ছিল ৩৮১ রান। হাতে ছিল ৯ উইকেট। ভারতের পুরো শক্তির দল ছিল চেন্নাই টেস্টে। খর্ব শক্তির দল যদি ব্রিজবেন দূর্গ চূর্ণ করে অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারে তাহলে কোহলিরা কেন পারবেনা নতুন ইতিহাস লিখতে! সে প্রশ্নকে সামনে নিয়েই শুরু হয়েছিল ভারতের ৫ম দিনের খেলা।

উইকেটে ছিলেন শুবমান গিল এবং চেতেশ্বর পুজারা। শুরুতেই পুজারাকে তুলে নিয়ে দ্রুত ভারতকে গুটিয়ে দেয়ার আভাস দেন ইংলিশ স্পিনার জ্যাক লিচ। কিন্তু লড়াইয়ের আবহ তৈরী করেন শুবমান। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন অধিনায়ক ভিরাট কোহলি। ক্যারিয়ারের তৃতীয় হাফ সেঞ্চুরিটাও পেয়ে যান গিল। কিন্তু পঞ্চাশেই  তাকে থামান অ্যান্ডারসন। সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়ার দ্বায়িত্ব তখন কোহলির।

কিন্তু রিশাভ পন্ত ছাড়া বাকি ব্যাটসম্যানদের কেউই দুই অংক ছুঁতে পারেননি। মাঝে অশ্বিনকে নিয়ে ৫০ উর্ধ্ব একটা পার্টনারশিপও গড়েন কোহলি। তখন হয়তো ম্যাচ জিতাতো দূরের কথা ম্যাচ বাঁচানোই ছিল ভারতের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু তা আর হলো কোথায়? অশ্বিন-কোহলির পর পর বিদায়ে ভারতের ড্র’য়ের স্বপ্নকেও শেষ করে দেয় ইংলিশ বোলাররা। ১৯২ রানে অলআউট ভারত। ২২৭ রানে ম্যাচ জিতে ইংলিশরা। উপমহাদেশে টানা ৬ষ্ঠ জয় তাদের। আর ২০১৭ সালের পর নিজেদের মাটিতে প্রথম টেস্ট হারল কোহলিরা।

এমন রোমাঞ্চকর জয়ে জ্যাক লিচের একটা আক্ষেপ থেকে গেল। ৮৬ বছর আগের রেকর্ডটা ছোয়া হলো না এই স্পিনারের। ভারতের মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে ৫ উইকেট নেয়া একমাত্র ইংলিশ বোলার জেমস ল্যাংরিজ। বুমরার উইকেটটা পেলেই জ্যাক লিচ ছুঁয়ে ফেলতেন স্বদেশীকে। দ্বিতীয় ইনিংসে লিচ ৪টা এবং অ্যান্ডারসন নেন তিন উইকেট। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ৫৭৮ এবং ১৭৮

ভারত ৩৩৭ এবং ১৯২ ( গিল ৫০, কোহলি ৭২, পুজারা ১৫) লিচ ৪/৭৬, অ্যান্ডারসন ৩/১৭

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img