NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার

দলের সবার বিশ্বাস, “সাকিব আছে মানে আমরা পারবো”: ডমিঙ্গো

- Advertisement -

তিনি বিশ্বসেরা, তিনি ‘তর্কসাপেক্ষে’ সর্বকালের সেরাদের একজন, তিনি নাম্বার ওয়ান, তিনি বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের আশা ভরসার প্রতীক, তিনি নিজের পারফরম্যান্স দিয়ে “যতক্ষণ সাকিব আছে ততক্ষণ ভরসা আছে” এই বদ্ধমূল ধারণার জন্মদাতা- কিন্তু এসবই তো পুরনো খবর। বাংলাদেশের অলিতে গলিতে যেকোনো দশজন মানুষকে একসাথে বসান, সবার মুখে মুখেই ঘুরে ফিরে সাকিব-বন্দনা শোনা যাবে।

তবে সাকিবের সতীর্থ অর্থাৎ বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের, বা দলের কোচিং স্টাফদের একসাথে বসিয়ে সাকিব সম্পর্কে তাদের মনের কথা জানতে চাওয়ার ঘটনা বোধহয় খুব বেশি ঘটেনি। সেটিই এবার আয়োজন করলো আইসিসি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে একটি বিশেষ ভিডিও কম্পাইলেশনে আইসিসি একসাথে এনেছে সাকিব সম্পর্কে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার, পেসার তাসকিন আহমেদ, প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্সের জবানি। মনোহর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ও সাকিবের ব্যাটিং বোলিং ফুটেজের সমান্তরালে সাকিবের এই কাছের মানুষরা মন খুলে সাকিব সম্পর্কে নিজেদের মনের কথা বলে গেছেন। ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বৃহস্পতিবার জন্ম দিয়েছে তুমুল আলোচনার। আসুন শোনা যাক সাকিব সম্পর্কে তারা কে কি বলেছেন।

রাসেল ডমিঙ্গো-

“সাকিব আল হাসান একজন কিংবদন্তি। এবং তা শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বক্রিকেটের প্রেক্ষাপটেই। সে দলের মধ্যে একটি স্বস্তির জায়গা নিয়ে আসে। তরুণ খেলোয়াড়দের জন্য সে একটি অনুপ্রেরণার জায়গা, অধিনায়কের জন্যও সহায়ক ভূমিকা পালন করে, ব্যাটিং বা বোলিং দুইদিক দিয়েই সে অসাধারণ। আমাদের দলের প্রেক্ষাপটে সে বিশাল মাপের একজন খেলোয়াড়। সে যেভাবে খেলে, সে দলের ভেতর যে আত্ববিশ্বাস নিয়ে আসে, তাতে দলের সবাই বিশ্বাস করে যে, সাকিব আছে মানে আমরা পারবো”

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ-

“শুধু এই সময়ের নয়, সম্ভবত সর্বকালেরই সেরা অলরাউন্ডারদের একজন। দলের জন্য একজন অসাধারণ পারফর্মার, একজন টপক্লাস প্লেয়ার, একজন অসাধারণ সতীর্থ ও একজন খুব খুব খুব ভালো বন্ধু”

সৌম্য সরকার-

“দলের জন্য সাকিব ভাই অনেক বড় সম্পদ। বোলিং ব্যাটিং ফিল্ডিং ও ডিসিশন মেকিং তিন দিক দিয়েই তিনি ভূমিকা রাখতে পারেন। যখন সাকিব ভাই খেলেন তখন আমরা সবাই আত্মবিশ্বাস অনুভব করি। তিনি যখন বোলিং করেন নিজের শতভাগ দিয়ে করেন, বিপক্ষদলকে চাপে ফেলেন। ব্যাটিং করার সময় বড় বড় ইনিংস খেলেন। সব মিলিয়ে দলে উনার ভূমিকা অনেক বিশাল”

তাসকিন আহমেদ-

“উনি সবার চেয়ে আলাদা। মাঠে হোক বা মাঠের বাইরে, তিনি সবসময় সবার চেয়ে আলাদা”

অ্যাশওয়েল প্রিন্স-

“আপনি যখন ক্রিকেটের প্রায় সব ফরম্যাটেই একনম্বর, আপনি যেকোনো দলের জন্যই অনেক বড় খেলোয়াড়। সাকিব যখন নাইমের মতো তরুণের সাথে ব্যাটিং করেছে… তখন তাঁর মতো একজনকে অপরপ্রান্তে পেয়ে নাইম কি পরিমাণ স্বস্তি ও আত্মবিশ্বাস পেয়েছে ভাবুন! টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের জন্য তো এমনিতেই অনেক চাপের খেলা। আবার বোলিংয়েও যখন সে মাহেদির সাথে জুটি বেঁধে বোলিং করছে তখনও তাদের বোঝাপড়া দারুণ। সাকিব বিশ্বব্যপী ক্রিকেট খেলেছে ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। এবং এই অভিজ্ঞতাসমূহ তরুণদের সাথে ভাগ করে নিতে সে অনেক বড় ভূমিকা পালন করে” 

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img