NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১২ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার

দশ দলের আইপিএলের নিয়মের বেড়াজাল!

- Advertisement -

দশ দলের আইপিএল আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)।  সোমবার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পর্যায়ের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। যা কার্যকর হবে ২০২২ সালের মেগা আসর থেকে। শুধু দল বৃদ্ধি নয়, আগামী মৌসুম থেকে অনেক নতুন নতুন নিয়ম সংযোজন করতে যাচ্ছে আইপিএল গভর্নিং কমিটি।

২০২১ আসরের আইপিএল মাঝপথে বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে বিসিসিআই। ভারতে করোনা প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় মাঝপথে আইপিএল বন্ধ করতে বাধ্য হয় বিসিসিআই। ৫ মে বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত মাঠে গড়িয়েছে মাত্র ২৯ ম্যাচ। টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হতে গেলেও এরই মধ্যে পরবর্তী আসর নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছে বিসিসিআই।

২০১৪ থেকে আইপিএলের দলসংখ্যা ১৪। শেষ সাত বছরের যাত্রার শেষ হতে যাচ্ছে এবার। দলসংখ্যা বাড়তে যাচ্ছে ২০২২ আসর থেকে। আইপিএল গভর্নিং কমিটি এর নাম দিয়েছে আইপিএলের মেগা আসর। নামের মতো পরিকল্পনাতেও খুবই পটু ভূমিকা পালন করছে বিসিসিআই। সবকিছুর মতো খেলোয়াড় ধরে রাখা এমনকি অর্থকড়ির ব্যাপারেও দারুন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে বিসিসিআই।

খেলোয়াড় ধরে রাখা

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার তথ্যমতে, প্রতিটা ফ্রাঞ্চাইজি ২০২২ আইপিএলের মেগা আসরকে সামনে রেখে চারজন খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে পারবে। এর মধ্যে তিনজন ভারতীয় আর একজন একজন বিদেশিকে ধরে রাখতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো। অন্যথায় দুইজন ভারতীয় এবং দুই বা ততোধিক বিদেশিকে ধরে রাখা যাবে। আগের আসরগুলোতে তিনজন খেলোয়াড় ধরে রাখার সুযোগ ছিল, এর মধ্যে দুইজন “স্টার” খেলোয়াড় রাইট টু ম্যাচ অপশনের জন্য বিবেচিত হতেন। তবে বিসিসিআই এখন রাইট টু ম্যাচ অপশন উঠিয়ে নিতে যাচ্ছে।

খেলোয়াড় ধরে রাখার ব্যাপারে অর্থের পরিমাণ

নিলামে অংশগ্রহণ করার আগে যেসব খেলোয়াড় ধরে রাখা হবে তাদের অর্থ সংক্রান্ত নীতিমালাও প্রকাশ করেছে বিসিসিআই।

  • তিনজন খেলোয়াড় ধরে রাখার ক্ষেত্রে যথাক্রমে ১৫ কোটি, ১১ কোটি, ৭ কোটি রুপি খরচ করতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো।
  • দুইজন খেলোয়াড় ধরে রাখার ক্ষেত্রে যথাক্রমে সাড়ে ১২ কোটি এবং সাড়ে আট কোটি রুপি খরচ করতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো।
  • একজন খেলোয়াড় ধরে রাখার ক্ষেত্রে সাড়ে ১২ কোটি রুপি খরচ করতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো।

ফ্রাঞ্চাইজিদের খেলোয়াড় কেনার অর্থের পরিমাণ বাড়ানো

বিসিসিআই ফ্রাঞ্চাইজিদের খেলোয়াড় কেনার অর্থের পরিমাণ বাড়ানোরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে । আগামী আসর থেকে ৮৫ কোটি রুপি থেকে ৯০ কোটি রুপির মধ্যে খেলোয়াড় কিনতে পারবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো। অর্থাৎ ফ্রাঞ্চাইজিগুলো আগামী মৌসুমে আরো ৫ কোটি রুপি খেলোয়াড় কিনতে বেশি খরচ করতে পারবে। আগামী তিন আসরে এই অর্থ হয়ে যাবে ৯০ কোটি রুপি থেকে ৯৫ কোটি রুপি পর্যন্ত। এমনকি ২০২৪ সালে এই অর্থের পরিমাণ হতে পারে ১০০ কোটি রুপিরও বেশি।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img