৬ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

দুই ওপেনারের ব্যাটে ক্যারিবিয়ানদের টানা দুই জয়, উইন্ডিজদের সিরিজ নিশ্চিত

- Advertisement -

প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও দুই ওপেনারই জয়ের ভীত গড়ে দেন। আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন শাই হোপ এবার তার জুটি এভিন লুইসের সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরি হতে পারতো শাই হোপেরও। ১৪ রান দূরে থাকতে ক্যাচ আউট হন। ওপেনিং জুটি থেকেই আসে ১৯২ রান। ১০৩ রান করেন এভিন লুইস। দুই ওপেনার প্রায় দু’শো রান করে দিলেও ২৭৪ রানের টার্গেট অনেকটাই কঠিন করে ফেলেছিল ক্যারিবিয়রা। শেষ দিকে নিকোলাস পুরানের ঝড়ো ইনিংস আবারও স্বস্তি ফিরে স্বাগতিক দলে। শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্য দরকার ছিল ৩১ রান। পুরান সেই সমীকরণ মিলান শেষ ওভারে। দুই বল বাকি থাকতে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ নিশ্চিত শাই হোপদের।

তার আগে টস হেরে ব্যাট করতে হয় শ্রীলঙ্কাকে। আল জারি জোসেফের শুরুর ধাক্কাতেই বেসামাল হয়ে যায় লঙ্কান ব্যাটিং লাইন। করুণারত্নে ও নিসানকাকে বিদায় করেন জোসেফ। লঙ্কানদের রান তখন মাত্র ৩২। ৫০ এ আরো এক উইকেট হারিয়ে বড় চাপ পড়ে সফরকারি দল। কিন্তু থিতু হয়ে যান চান্দিমাল। গুনাথিলাকা পান যোগ্য সঙ্গ। শতরানের জুটিতে শুরুর ধাক্কা কিছুটা সামাল দেন চান্দিমাল-গুনাথিলাকা। এই জুটি বিচ্ছিন্ন করেন জেসন মাহমুদ। ৪ রানের জন্য গুনাথিলাকাকে সেঞ্চুরির আক্ষেপে পোড়ান। সঠিক সময় জুটি ভেঙ্গে চান্দিমালকেও বিদায় করেন জেসন। ৭১ রান করে ক্যাচ আউট হন চান্দিমাল। তারপর আবারও ধুঁকতে হয় লঙ্কান ব্যাটিং লাইনকে। শেষ দিকে অবশ্য হাসারাঙ্গার মারমুখী ব্যাটিং লড়াইয়ের সংগ্রহ এনে দেয় শ্রীলঙ্কাকে। ৩১ বলে ৪৭ রান করেন হাসারাঙ্গা। চারটি ছয় ও দুটি চারের মার ছিল তার। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ২৭৩ রান শ্রীলঙ্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা ২৭৩/৮ ( গুনাথিলাকা ৯৬,  চান্দিমাল ৭১, হাসারঙ্গা ৪৭) জেসন ৩/৪৭

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৭৪/৫ ( লুইস ১০৩, হোপ ৮৪, পুরান ৩৫) পেরেরা ২/৪৫

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img