৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার

দুর্দান্ত মুস্তাফিজ, ব্যর্থ ব্যাটসম্যানরা; হারলো রাজস্থান

- Advertisement -

মুস্তাফিজুর রহমানের অসাধারণ এক বোলিং স্পেলের কল্যাণে মোটামুটি জেতার মতো রানে দিল্লী ক্যাপিটালসকে আটকে ফেলতে পারলেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় শেষ হাসিটা হাসতে পারলো না রাজস্থান রয়েলস। ৩৩ রানে তারা হেরে গেছে দিল্লীর কাছে। মন্থর নিচু উইকেটে এক সঞ্জু স্যামসন ছাড়া দিল্লীর বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ের সামনে টিকতে পারেননি রাজস্থানের কোন ব্যাটসম্যান।

উইকেটের চরিত্র বুঝতে পেরে টসে জিতে বোলিংই নিয়েছিলেন রাজস্থান অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন। এবং তাঁর সিদ্ধান্তের প্রতিদানও তাঁর বোলাররা দিয়েছে। ধীরগতিতে বোলিং করে দিল্লীর ব্যাটসম্যানদের রান তোলার কাজটা দুরূহ করে তুলেছিলেন মুস্তাফিজ-সাকারিয়া রা। নিজের বোলিংয়ের ‘আদর্শ বধ্যভূমি’ পেয়ে জ্বলে উঠেছিলেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজও। ৪ ওভার বল করে কোন বাউন্ডারি হজম করেননি মুস্তাফিজ; দেখিয়েছেন কাটার ও গতির বৈচিত্র্য। ডেথ ওভারে তাঁর দারুণ এক স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হয়ে বোল্ড হন রিশভ পান্থ; শিমরন হেটমায়ারকে আউট করেন আবার অপেক্ষাকৃত দ্রুতগতির দুর্দান্ত এক ইয়র্কার লেংথ বলে। এই দুটো উইকেট নাহলে হয়তো দিল্লীর সংগ্রহ আরো বড় হত।

নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান সংগ্রহ করে দিল্লী ক্যাপিটালস। তাঁদের সেরা ইনিংস হয়ে থাকে শ্রেয়াস আইয়ারের ৩২ বলে ৪৩।

বোলাররা উঠিয়েছেন উইকেটের পূর্ণ উপযোগ; তবে রাজস্থানের ব্যাটসম্যানরা যেন ব্যাটিংয়ে নামার আগে ভুলেই গিয়েছিলেন উইকেটের চরিত্র। মাথা খাটিয়ে গতির বৈচিত্র্য এনে বল করছিলেন দিল্লীর আভেশ খান-নরকিয়া-রাবাদা-আশ্বিনরা, বিপরীতে একের পর এক বাজে শট খেলে প্যাভিলিয়নে ফিরছিলেন লিভিংস্টোন, মিলার, লোমরোররা। অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে একা লড়ে যাচ্ছিলেন; কেউ দিতে পারেননি তাঁকে ন্যূন্যতম সঙ্গ। সঞ্জুর ৫৩ বলে ৭০* বাদে রাজস্থানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান ছিল মহীপাল লোমরোরের ১৯। বাকি একজন ব্যাটসম্যানও ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের রানও।

২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে রাজস্থান রয়েলস করতে পারে মাত্র ১২১। দিল্লীর পক্ষে আইনরিখ নরকিয়া নিয়েছেন ২ উইকেট। বাকি চারজন বোলার নিয়েছেন ১টি করে।

এই জয়ে ১০ ম্যাচ শেষে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান অক্ষত রাখল দিল্লী ক্যাপিটালস।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img