১৭ জুলাই ২০২৪, বুধবার

দ্বিতীয় সেশনেও লঙ্কান ব্যাটারদের দাপট

- Advertisement -

চট্টগ্রাম টেস্টে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম সেশনটা বিনা উইকেটে কাটিয়ে দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার নিশান মাদুশকা ও দিমুথ করুণারত্নে। দুজনেই পেয়েছেন ফিফটির দেখা। তবে দ্বিতীয় সেশনে দুই লঙ্কান ওপেনারকে ফিরিয়ে লড়াইয়ের বার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ।

চট্টগ্রামের উইকেটে বোলারদের জন্য কিছু নেই। উইকেট পুরোদস্তুর ব্যাটিং সহায়ক, টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিতে ভূল করেননি লঙ্কান অধিনায়ক।

শুরুতে পিচ থেকে দারুণ সুইং আদায় করে নিয়েছেন খালেদ আহমেদ ও হাসান মাহমুদ। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারেই টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম উইকেটটি পেতে পারতেন হাসান। স্লিপে তার বলে মাদুশকার ক্যাচ ফেলেন মাহমুদুল হাসান জয়। প্রথম সেশনে অভিষিক্ত হাসান ছিলেন বাংলাদেশের সেরা বোলার। সবচেয়ে বেশি সুযোগও সৃষ্টি করেছিলেন ডানহাতি এ পেসার।

লাঞ্চের আগেই দুই উইকেট পেয়ে যেতে পারতেন হাসান। তার শট বলে হুক করতে গিয়ে ফাইন লেগে করুণারত্নে ক্যাচ তুলেছিলেন কিন্তু সাকিব আল হাসান বাউন্ডারি লাইন থেকে দূরে থাকায় ড্রাইভ দিয়েও ক্যাচ নিতে পারেননি, হয়েছে ছক্কা। এছাড়া এদিন রান আউটও মিস করেছে বাংলাদেশ। অবশ্য রান আউট করেই ৫৭ রান করা মাদুশকাকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়েছেন হাসান।

মাদুশকা ফেরার পর টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩৭তম ফিফটি ঠিকই তুলে নিয়েছেন করুণারত্নে। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে বাংলাদেশের বোলারদের খুব একটা পাত্তা দিচ্ছেন না তিনি। সেঞ্চুরির দিকেই ছুটছিলেন করুণারত্নে। কিন্তু টানা ভাল জায়গায় বল করে যাওয়ার পুরস্কার পেয়েছেন হাসান। তার অফ স্ট্যাম্পের বাইরের বলে স্ট্যাম্পে ডেকে এনে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তিনি। তার আগে করেছেন ৮৬ রান।

তিনে আসা কুশল মেন্ডিসও করছেন সাবলীল ব্যাটিং। ৮৭ বলে ফিফটি তুলে নিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশি বোলারদের বাজে বল পেলেই বাউন্ডারি মেরেছেন ডানহাতি এ ব্যাটার। বেশকিছু দৃষ্টিনন্দন শট খেলেছেন তিনি।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, ২ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ২১৪ রান। কুশল অপরাজিত আছেন ৬৫ রানে, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সংগ্রহ অপরাজিত ১ রান।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img