১৬ জুন ২০২৪, রবিবার

পাকিস্তানের বিপক্ষে কে হবেন শান্ত?

- Advertisement -

চোট আর বাংলাদেশের এশিয়া কাপ যেন সমার্থক শব্দ। এই টুর্নামেন্ট আসলেই একের পর এক ক্রিকেটার ইনজুরিতে পড়ে। এইতো শ্রীলঙ্কা যাওয়ার আগে জ্বরের কারণে যেতে পারলেন না লিটন কুমার দাশ। যদিও দল সুপার ফোরে ওঠার পর যোগ দিয়েছেন। স্কোয়াডে থেকেও চোটমুক্ত না হওয়ায় নেই ইবাদত হোসেন চোধুরী। এই তালিকায় সবশেষ সংযোজন নাজমুল হোসেন শান্ত।

টুর্নামেন্টের বর্তমানে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বাঁহাতি এই ব্যাটার। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের হারার ম্যাচে বাকি ব্যাটাররা যেখানে দাঁড়াতেই পারিনি সেখানে বুক চিতিয়ে লড়েছেন শান্ত। কাসুন রাজিথা-মাহিশ থিকসানাদের কোনো পাত্তাই দেননি সেদিন। ১২২ বলে ৭ বাউন্ডারিতে করেছিলেন ৮৯ রান। এই ইনিংসের কারণেই ১৬৪ রান স্কোরবোর্ডে তুলতে পেরেছিলো সাকিব আল হাসানের দল।

সুপার ফোরের বাঁচা-মরার ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে আরও ভয়ংকর রুপে ধরা দিয়েছিলেন শান্ত। ১০৫ বলে ৯ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় খেলেছিলেন ১০৪ রানের ইনিংস। সেই ম্যাচেই বন্ধু মেহেদি হাসান মিরাজকে নিয়ে ১৯৪ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে মিরাজকে সাথে নিয়ে গড়েছিলেন ১৯৪ রানের জুটি

পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে শান্তকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। যা দলের জন্য বড় ক্ষতি। সেটি অস্বীকার করছেন না পেসার তাসকিন আহমেদও। মঙ্গলবার বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, “শান্তর (নাজমুল) চোট অবশ্যই আমাদের জন্য ক্ষতি। ওর জন্য শুভকামনা থাকবে, দ্রুত যেন চোট থেকে ফিরতে পারে। ও অসাধারণ ব্যাটিং করেছে দুটো ম্যাচেই। শান্তর পরিবর্তে যে খেলবে, আশা করছি অভাবটা সে পূরণ করে দিতে পারবে”

দলের সাথে যোগ দিয়েছেন লিটন। পাকিস্তানের বিপক্ষে একাদশে দেখা যেতে পারে ডানহাতি এই ব্যাটারকে। এশিয়া কাপে এখনো নিজের সেরাটা দেখাতে পারেননি তাওহীদ হৃদয়। শান্ত না থাকায় পাকিস্তান ম্যাচে তারও দিকে বাড়তি নজর থাকবে সমর্থকদের। দেখা যাক, বাবর আজমের দলের বিপক্ষে কেউ শান্ত হতে পারেন কিনা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img