২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

পিএসজিতে গেলেন রামোস

- Advertisement -

দুই বছরের চুক্তিতে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনে (পিএসজি) গেলেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই মেডিকেল পরীক্ষা হয়ে যাবে বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা এই ডিফেন্ডারের।

স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে রামোসের চুক্তি ছিল চলতি মৌসুম পর্যন্ত। চলতি মৌসুম শেষ হয়েছে বুধবার। রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে  চুক্তি নবায়ন না করায় সার্জিও রামোস তাই এতদিন ছিলেন ফ্রি এজেন্ট। বৃহস্পতিবার ঘোষনা এলো রামোসের ভবিষ্যত গন্তব্য হতে যাচ্ছে ফরাসি ক্লাবটি। প্যারিসে গিয়ে ক্লাবটির সঙ্গে চুক্তি চুড়ান্ত করেছেন রামোসের ভাই। সপ্তাহখানেকের মধ্যেই মেডিকেল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

দুই বছরের চুক্তিতে ফরাসি জায়ান্টদের দল ভারী করলেন রামোস। ইতোমধ্যেই গ্রীষ্মকালীন দলবদলে তারা ভিরিয়েছে ইতালিয়ান গোলকিপার জিয়ানলুইজি দনারুমা, ডাচ মিডফিল্ডার জর্জিনিও ভাইনালদামের মতো খেলোয়াড়। দলবদলের বাজারে গুঞ্জন আছে ৭০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ইন্টার মিলান উইং ব্যাক আশরাফ হাকিমিও আসতে যাচ্ছেন পিএসজিতে।  সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আসতে পারে আনুষ্ঠানিক খবর।

গত ১৭ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে ১৬ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন সার্জিও রামোস।  সেভিয়ার যুব প্রকল্প থেকে  উঠে এসে দুই মৌসুম মুল দলে কাটিয়ে ২০০৫সালে ২৭ মিলিয়ন ইউএস ডলারে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন রামোস। সেবার রামোসের উপর নজর ছিল ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেষ্টার সিটি, জুভেন্টাস, পিএসজির মতো বড় ক্লাবের। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে ২২টি শিরোপা জিতেছেন রামোস। করেছেন ১০১টি গোল।

তবে রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার কোনো ইচ্ছাই ছিলো না রামোসের। চুক্তি জটিলতায় ক্লাব ছাড়তে একপ্রকার বাধ্যই হয়েছেন রিয়াল কিংবদন্তি। বিদায় বেলায় জানিয়েছিলেন তিনি রিয়ালেই থাকতে চেয়েছিলেন।

“ক্লাবে থাকাই আমার প্রথম পছন্দ ছিল । আমাকে বেতন কমানোর পাশাপাশি এক বছরের চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। আমার কাছে অর্থ কোনো ব্যাপার নয়, আমি পরিবারের কথা ভেবে দুই বছরের জন্য থাকতে চেয়েছিলাম। পরবর্তীতে আমি এক বছরের চুক্তিতে রাজি হলেও, ক্লাব কতৃপক্ষ জানিয়ে দেয় সেই প্রস্তাবের সময়সীমা নাকি অতিক্রম করে গেছে।”

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img