২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার

পিছিয়ে পড়েও টটেনহ্যামকে হারালো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

- Advertisement -

প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুতে ছন্নছাড়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। পিছিয়ে পড়েও দুর্দান্ত কামব্যাকে জয় নিয়ে বাড়ি ফিরেছে ওলে গানার সুলশারের দল। অপর দিকে, ক্যারিয়ারে প্রথমবার লিগে এক মৌসুমে দশ ম্যাচ হারলেন হোসে মরিনহো।

নিরুত্তাপ প্রথমার্ধের শেষ মুহুর্তে হিয়ুং-মিন সনের গোলে এগিয়ে গেলেও বিরতির পর লিড ধরে রাখতে পারেনি টটেনহ্যাম। দ্বিতীয়ার্ধে দারুন কামব্যাকে স্বাগতিকদের ৩-১ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এ নিয়ে লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে টানা ২৩ ম্যাচ অপরাজিত থাকলো ওল্ড ট্রাফোর্ডের দলটি। গত অক্টোবরে আসরের প্রথম দেখায় ইউনাইটেডের মাঠে ৬-১ গোলে জিতেছিল টটেনহ্যাম।

ঘরের মাঠে স্বাগতিকদের রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলায় ভালো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি রেড ডেভিলরা। তবে ম্যাচের ৩৬ মিনিটে পল পগবার পাস থেকে দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে গোল করেন এডিনসন কাভানি। কিন্তু, ভিএআর চেক করার পর অফসাইডে গোলটি বাতিল হয়ে যায়।

৪ মিনিট পরই এগিয়ে যায় টটেনহ্যাম। ৪০ মিনিটে ইউনাইটেডের ডি বক্সে লুকাস মৌরার দারুণ পাস থেকে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন হিয়ুং-মিন সন। চলতি মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে জাপানি তারকার ১৪তম গোল ছিল এটি। প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়া ইউনাইটেড বিরতির পর নিজেদের মেলে ধরে। একের পর এক আক্রমণে টটেনহ্যামের ডিফেন্স ব্যস্ত রাখে রেড ডেভিলরা, ফলাফলও টাও পায় হাতেনাতে।

৫৭ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফ্রেডের গোলে সমতায় ফিরে সফরকারীরা। ৭৯ মিনিটে এডিনসন কাভানি দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। অতিরিক্ত সময়ে স্বাগতিকদের জালে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন ম্যাসন গ্রিনউড। সবধরনের প্রতিযোগিতা মিলে ঘরের মাঠে সবশেষ ৫ ম্যাচে জয়ের দেখা পায়নি টটেনহ্যাম। শুরুতে এগিয়ে যেয়েও চলতি মৌসুমে সবমিলিয়ে ১৮ পয়েন্ট খোয়ালো স্পার্সরা।

৩১ ম্যাচে ১৮ জয়ে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে ম্যান ইউ। এক ম্যাচ বেশি খেলে শীর্ষে থাকা নগরপ্রতিদ্বন্ধী ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট ৭৪। সবশেষ ৫ ম্যাচে ২ জয় ও ২ হারে টটেনহ্যাম হটস্পার্স আছে পয়েন্ট টেবিলের সাত নম্বরে।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img