২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

পোর্তোর মাঠে দাপট দেখিয়ে জিতেছে লিভারপুল

- Advertisement -

চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে বি গ্রুপের ম্যাচে পোর্তোকে গোলবন্যায় ভাসিয়েছে লিভারপুল। বুধবার প্রতিপক্ষের মাঠে লিভারপুল করেছে পাঁচ গোল। মোহাম্মদ সালাহ এবং রবার্তো ফিরমিনো করেছেন জোড়া গোল, অপর গোলটি করেছেন সাদিও মানে। এদিন ১-৫ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে এসি মিলানকে হারিয়েছিলো লিভারপুল, অপরদিকে আতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠ থেকে গোলশুন্য ড্র নিয়ে ফিরেছিলো পোর্তো। তাই, বুধবার রাতের ম্যাচটি প্রতিদন্দিতাপূর্ন হবে বলেই মনে হচ্ছিলো। অবশ্য, সেই ধারনা উবে গেছে ম্যাচের প্রথমার্ধেই। ১৮ মিনিটে ইংলিশ মিডফিল্ডার কার্টিস জোনসের শট ফিরিয়ে দেন পোর্তো গোলি দিয়োগো কস্তা, রিবাউন্ড শট মোহাম্মদ সালাহর পায়ে আসলে তিনি গোল করতে ভুল করেননি। ফলে খেলার প্রথম কোয়ার্টারের আগেই ম্যাচে লিড নেয় ইংলিশ ক্লাবটি।

গোলের নেশায় পেয়ে বসা লিভারপুল এরপর মুহূর্মুহূ আক্রমণ চালায় পোর্তোর গোলে। পোর্তো গোলি একের পর এক সেভ করলেও হার মানেন ফার্স্ট হাফের শেষ মিনিটে। চুয়াল্লিশ তম মিনিটে অ্যাডাম মিলনের ফ্রি-কিক সেভ করে দম নেওয়ার আগেই মিলনের ক্রসে পরাস্ত হন দিয়োগো কস্তা। ফলে ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা মানে পা ছুঁইয়ে লিভারপুলকে ০-২ গোলের লিড এনে দেন।

সেকেন্ড হাফেও পোর্তো-লিভারপুল ম্যাচের গতিবেগে আসেনি কোনো পরিবর্তন। প্রথমার্ধে পোর্তোর গোল ম্যাচের ১৮ মিনিট পর্যন্ত সুরক্ষিত থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধের ১৫ মিনিটেই ভাঙ্গে পোর্তোর জালের প্রতিরোধ। ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোল করে স্কোরলাইন ০-৩ করেন মোহাম্মদ সালাহ। প্রথমটায় জোনসের রিবাউন্ডে গোল করার পর দ্বিতীয় গোলেও সালাহ পেয়েছেন এই মিডফিল্ডারের অ্যাসিস্ট। জোনসের দারুন থ্রু বলে ওয়ান টু ওয়ানে দিয়োগো কস্তাকে পরাস্ত করেন ‘ইজিপশিয়ান কিং’ সালাহ।

০-৩ গোলের পরিষ্কার লিড দেখেই কি না ম্যাচে একসাথে ৩টি সাবস্টিটিউশন করান লিভারপুল বস ইয়ুর্গেন ক্লপ। ট্রিপল চেঞ্জের মিনিট সাতেক পরই এক গোল শোধ দিয়ে ম্যাচে ফেরার ইংগিত দেয় পোর্তো। ফ্যাবিও ভিয়েরার  ক্রসে লিভারপুলের পেনাল্টি এরিয়ায় মাথা ছুঁইয়ে পোর্তোকে প্রথম গোল এনে দেন ইরানের ফরোয়ার্ড মেহেদি তারেমি।

অবশ্য, গোল খেয়ে চুপচাপ বসে থাকেনি লিভারপুল। মোহাম্মদ সালাহর বদলে মাঠে নামা রবার্তো ফিরমিনো ম্যাচে নিজের প্রথম গোল পান ৭৮তম মিনিটে। আগের গোলের মতো এই গোলেও অবদান কার্টিস জোনসের।  জোনসের চিপ করা বল বক্সের বাইরে এসে ক্লিয়ার করতে গিয়েই গুবলেট পাকিয়ে ফেলেন পোর্তো গোলরক্ষক দিয়োগো কস্তা। ফলে ফাঁকা নেটে আরামে গোল করেন ফিরমিনো। ৭৮মিনিটের পর ৮১মিনিটে ম্যাচে নিজের ২নম্বর আর লিভারপুলের ৫নম্বর গোল করেন রবার্তো ফিরমিনো। ১৮মিনিটে খোলা ম্যাচে গোলের খাতা বন্ধ হয় ৮১মিনিটে। ফলে ১-৫ গোলের বড় জয় ওঠে লিভারপুলের নামের পাশে।

চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপ বি হয়েছে এবারের আসরের ‘গ্রুপ অব ডেথ’। কঠিনতম এই গ্রুপে প্রথম দুই ম্যাচে জয় নিয়ে পরের রাউন্ডে ওঠার হিসেবে বেশ খানিকটা এগিয়ে গেলো লিভারপুল। অপরদিকে, প্রথম ম্যাচে আতলেতিকোকে আটকে দেওয়া পোর্তো এদিন ৫ গোল হজম করে নিশ্চিতভাবেই পেয়েছে বড়সড় একটা ধাক্কা। পর্তুগালের ক্লাবটি চাইবে গ্রুপে নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে ২০অক্টোবর  এসি মিলানের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াতে।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img