NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৬ আগস্ট ২০২২, মঙ্গলবার

প্রয়োজনে ওপেন করবেন সাকিব-মিঠুন!

- Advertisement -

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দলের দরকার হলে ইনিংস উদ্বোধন করবেন সাকিব আল হাসান এবং মোহাম্মদ মিঠুন, ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলণে এমন কথাই বলেছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। এছাড়া টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের খারাপ দল বলতেও নারাজ টাইগারদের কোচ।

ছবিঃ বিসিবি
ছবিঃ বিসিবি

অজিদের বিপক্ষে ৭ দিনে টাইগারদের খেলতে হবে ৫ টি-টোয়েন্টি। এছাড়া সদ্য জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে এসেছে টাইগাররা। তার আগে এক মাস কেটেছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে, শ্রীলঙ্কা সিরিজে। ক্রিকেটের ব্যস্ত সূচীতে তাই স্বাভাবিকভাবেই ক্লান্ত টাইগাররা। দলে ক্রিকেটারদের মধ্যে বাড়ছে ইনজুরি ঝুঁকি। ইনজুরির কারনে কেউ ছিটকে গেলেও যাতে দল বিপদে না পড়ে তাই অজিদের বিপক্ষে কুড়ি ওভারের দলে সদস্য ১৭ জন। কিন্তু দলে মাত্র দুজন ওপেনার।

সৌম্য সরকার এবং মোহাম্মদ নাইম শেখ, টাইগারদের ইনিংস উদ্বোধনের দায়িত্ব সামলাবেন এই দুজন। কিন্তু কেউ যদি ইনজুরিতে পড়েন কিংবা অফফর্মে ভোগেন তাহলে? কে সামলাবেন ইনিংস উদ্বোধনের দায়িত্ব? সেই প্রশ্নের বাউন্সারে রীতিমতো হুক করে জবাব দিলেন রাসেল ডমিঙ্গো।

“আমাদের ভাবনাতে এটা আছে। ওপেনিং পজিশনে আমাদের বিকল্প আছে। সাকিব তিন থেকে উঠে এসে ওপেনিংয়ে খেলতে পারে। মোহাম্মদ মিঠুন দলে ফিরেছে। সে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হলেও দলের প্রয়োজনে সে টি-টোয়েন্টিতে ওপেন করতে পারে। আশা করি, ওপেনাররা ফিট থাকবে। তবে কিছু হয়ে গেলেও আমাদের হাতে বিকল্প আছে”

ছবিঃ বিসিবি
ছবিঃ বিসিবি

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সাকিব আল হাসান ব্যাটিং করেন তিন নম্বর পজিশনে, তবে কখনোই তাকে ওপেনিং করতে দেখা যায়নি। মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করা মোহাম্মদ মিঠুনের আবার আছে জাতীয় দলের হয়ে ইনিংস উদ্বোধন করার অভিজ্ঞতা। একটি ওয়ানডে ম্যাচের সঙ্গে ছয় টি-টোয়েন্টিতে ওপেন করেছেন মিঠুন। স্কোয়াডে থাকা অলরাউন্ডার শেখ মাহেদি হাসানের আছে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত ওপেন করার অভিজ্ঞতা। ওপেনিং পজিশন নিয়ে সবসময়ই বাজি ধরতে পছন্দ করেন ডমিঙ্গো। এর আগে ২০১৯ সালে মুশফিকুর রহিমকে ওপেনিং করতে পাঠিয়েছিলেন তিনি।

 

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ মোটাদাগে ব্যর্থ। বড় কোনো সাফল্য নেই। অক্টোবর-নভেম্বরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও বাংলাদেশকে পেরোতে হবে বাছাইপর্বের বাধা। সেই ‘প্রথম রাউন্ড’ পর্ব পেরিয়ে মূল পর্বে খেলতে হলে নিজেদেরকে যোগ্য প্রমাণ করতে হবে পাপুয়া নিউগিনি, ওমান, স্কটল্যান্ডের মত দলের বিপক্ষে। যেখানে আফগানিস্তান সরাসরি খেলবে বিশ্বকাপ। তবে নিজেদের দুর্বল বা খারাপ দল বলতে নারাজ ডমিঙ্গো। ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলণে বলেছেন সে কথা।

ছবিঃ বিসিবি
ছবিঃ বিসিবি

“কেন সবাই আমাদের খারাপ দল বলে আমি বুঝি না। আমাদের দলে অনেক ভালো খেলোয়াড় আছে। ওয়েষ্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়দের মতো আমাদের শরীর নেই তবে দল হিসেবে আমরা বেশ ইতিবাচক। জিম্বাবুয়েতে ভালো করে আমরা আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছি। সেটাই কাজে লাগাতে চাই”

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img