NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
১৫ আগস্ট ২০২২, সোমবার

ফিল্ডারদের মানসিক চাপ কমানোর চেষ্টা করতে হবে: নতুন ফিল্ডিং কোচ বাবুল

- Advertisement -

শনিবার বিসিবি থেকে ঘোষণা আসে ফিল্ডিং কোচ হিসেবে রায়ান কুকের সাথে চুক্তি নবায়ন করা হবে না। তারপর থেকেই কথা হচ্ছিলো, কে হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দলের নতুন ফিল্ডিং কোচ। এরপর রবিবার ঘোষণা করা হয় দেশী কোচ মিজানুর রহমান বাবুল বসতে যাচ্ছেন ফিল্ডিং কোচের আসনে।

এমনিতেই জাতীয় দলের অনুশীলন সেশনে নিয়মিত মুখ টাইগারদের প্রিয় ‘বাবুল স্যার’, খেলোয়াড়দের নেট সেশন পর্যবেক্ষণ করেন তিনি, মাঝেমধ্যে দেখিয়েও দেন কিছু কিছু জিনিস। আসন্ন পাকিস্তান সিরিজের জন্য খেলোয়াড়দের সাথে কাজ করতে রবিবারও মাঠে এসেছিলেন বাবুল। সেখানে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি।

“আমাদের এখানে পাকিস্তান এসেছে, আমরা নতুনভাবে শুরু করতে চাই।  এই সিরিজে আমি ফিল্ডিং কোচ হিসেবে কাজ করবো” ফিল্ডিং কোচ হওয়া প্রসঙ্গে বাবুল

দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে কীভাবে পরিকল্পনা সাজাতে চান তিনি, এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন,

“একেকজন কোচের পরিকল্পনা একেক রকম থাকে। তবে আপনাদের আগেও বলেছি, মানসিক চাপ কমানোর চেষ্টা করতে হবে। একজন ফিল্ডার যদি এমন চ্যালেঞ্জ নিতে পারে যে, আমি ক্যাচটা ধরবোই তাহলে ফিফটি-ফিফটি চান্স থাকবে। সবার টেকনিক এক রকম না। কিছু কিছু জায়গায় ঘাটতি থাকবেই, সেগুলো নিয়ে কাজ করতে হবে”

প্রথম দিন দলের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত এই কোচ জানান,

“আমি যতোটুকু কাজ করেছি তার মধ্যে বেসিক কথাগুলোই বেশি বলেছি। চেষ্টা করেছি, ওদের ভুলগুলো ধরিয়ে দিতে, কেন ক্যাচ মিস হচ্ছে। আজকে যেহেতু আবহাওয়া খারাপ ছিল তাই যতোটুকু প্র্যাকটিস করানো যায়, ততোটুকুই করিয়েছি। বেশি প্র্যাকটিস করলে আবার ইনজুরির সমস্যা দেখা দিতে পারে”

জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের স্কিলে ঘাটতি না থাকলেও কেনো বারবার ক্যাচ মিস হচ্ছে, তবে কি মানসিক চাপের কারণে দলের ক্রিকেটাররা তাদের সমস্যা হচ্ছে? সংবাদমাধ্যমের এমন প্রশ্নের জবাবে বাবুল জানান,

“এটা হতেই পারে। শুধুমাত্র ফিল্ডিংয়ের ক্ষেত্রেই না, ব্যাটিং কিংবা বোলিংয়ের ক্ষেত্রেও এমন ঘটনা ঘটতে পারে। মাঠে তো মানসিক চাপ আছেই। চাপটা যে যতো বেশি নিতে পারবে, দিনশেষে সাফল্য তাঁর কাছেই ধরা দিবে”

দলে ডাক পাওয়া নতুন খেলোয়াড়দের মধ্যে ভালো মানের ফিল্ডারের অভাব দেখছেন না এই কোচ। তাঁর দাবি, “আমাদের দলে অনেক ভালো ভালো ফিল্ডার আছে। শামীম পাটোয়ারি খুব ভালো মানের ফিল্ডার। এবং হৃদয়, সাইফ, তানভীর ওরাও অনেক ভালো করছে। ওরা যদি একটি ইউনিট হিসেবে কাজ করতে পারে তাহলে সাফল্য আসবে। এটা দলের নতুন খেলোয়াড়দের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জটা নিতে পারলে আমার মনে হয় তারা ভালো করতে পারবে এবং দল মোটিভেটেড হবে”

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img