২৮ জানুয়ারি ২০২৩, শনিবার

বাংলাদেশের হারের কারণ ‘সাতদিনে তিন ম্যাচ’

- Advertisement -

দুই ম্যাচে চার পয়েন্টের পর তৃতীয় ম্যাচে ছন্দপতন। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় ও ইন্ডিয়ার বিপক্ষে ড্র আদায় করে উড়তে থাকা বাংলাদেশকে বৃহস্পতিবার মাটিতে নামিয়েছে মালদ্বীপ। হামজা মোহাম্মদ ও আলি আশফাকের গোলে ২-০ ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। সেই হারের কারণ ব্যাখ্যা করতে শুক্রবার টিম হোটেলে গণমাধ্যমের সামনে উপস্থিত হন জাতীয় দলের রাইট উইংব্যাক রহমত মিয়া; যিনি বলেছেন, হারের মূল কারণ খুব কম সময়ের মধ্যে অনেকগুলো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলাজনিত ক্লান্তি।

“আমরা সাতদিনে তিনটি ম্যাচ খেলেছি। আমাদের মূল খেলোয়াড়রা ক্লান্ত ছিল।  অন্যদিকে ওরা (মালদ্বীপ) অনেক রেস্ট পেয়েছে, তরতাজা হয়ে খেলতে নেমেছে। “- বলেছেন রহমত 

সংবাদ সম্মেলনে রহমত মিয়া

“আমাদের সাধারণ গেমপ্ল্যান ছিল ওদের মিডফিল্ড ব্লক করে এরপর আক্রমণে ওঠা। তবে আমাদের এনার্জির ঘাটতি ছিল।  সবাই জানে এবার সবচেয়ে শক্তিশালী আক্রমণভাগ মালদ্বীপের। এটা লিগের খেলা নয় যে ঢিলেঢালাভাবে সবকিছু হয়, আন্তর্জাতিক ফুটবলে সাতদিনে তিনটি ম্যাচ খেলা খুবই কঠিন”- যোগ করেছেন রহমত

এমনিতে রাইটব্যাক পজিশনে খেলা রহমত গতকাল কোচ অস্কার ব্রুজনের ট্যাকটিকস রাইট উইঙ্গার সাদ উদ্দিনের সাথে পজিশন বদল করে রাইট ‘উইঙ্গার’ হিসেবেও খেলেছেন; যদিও খুব বেশি লাভ হয়নি। ঘরোয়া লিগে সাইফ স্পোর্টিংয়ের হয়ে খেলা এই ফুটবলার কথা বলেছেন জাতীয় দলে তাঁর নতুন দায়িত্ব নিয়েও,

“আমাদের দুজন খেলোয়াড় কার্ড পেয়েছে, অনেকে ইনজুরিতে আছে। সবদিক বিবেচনা করেই আমাকে নতুন রোলে খেলিয়েছেন কোচ। আমি চেষ্টা করেছি নিজের সাধ্যমতো সেরাটা দিতে।”

মালদ্বীপের সাথে হেরে যে ফাইনালে ওঠার আশা একেবারে শেষ হয়ে গেছে বাংলাদেশের তা নয়। ২ ম্যাচ থেকে ৪ পয়েন্ট তো এসেছেই, নেপালকে হারাতে পারলে ফাইনালে ওঠার ভালো সুযোগই আছে। ম্যাচের আগে আছে বিশ্রাম ও নতুন উদ্যমে ঘুরে দাঁড়াবার পর্যাপ্ত সময়ও।  গতকালকের হারের পর সবার মনেও এই চিন্তাই চলছে, বলেছেন রহমত।

“দলের কেউই মানসিকভাবে পিছিয়ে নেই। এই ম্যাচটি জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করতে চেয়েছিলাম আমরা; জিততে না পারলেও পয়েন্ট নিয়ে আসার ইচ্ছে ছিল। তা হয়নি, তবে আমরা জানি এখনো সব শেষ হয়ে যায়নি। নেপালের ম্যাচের আগে ৫ দিন গ্যাপ আছে। ওই ম্যাচটি জিতলেই ফাইনাল খেলতে পারব।”

জিমে ঘাম ঝড়াচ্ছেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের যে সকল খেলোয়াড় মালদ্বীপের বিপক্ষে খেলেনি অথবা ৬০ মিনিটের কম খেলেছেন, শুক্রবার তারা দুটি ভাগে বিভক্ত হয়ে সকাল ১০.০০ টা থেকে সকাল ১১.৩০ টা পর্যন্ত জিম সেশন সম্পন্ন করেছেন। জিম সেশন শেষে খেলোয়াড়রা সময় কাটিয়েছেন সুইমিং পুলে।

হারের পর খেলোয়াড়দের উজ্জীবিত করতে বক্তব্য রাখছেন কাজী সালাউদ্দিন

গতকাল মালদ্বীপের সাথে পরাজয়ের পর বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সম্মানিত সভাপতি কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জনাব আবু নাঈম সোহাগ, সদস্য, বাফুফে ও এএসসির এবং ফিফা কাউন্সিল মেম্বার মিস মাহফুজা আক্তার কিরণ টিম হোটেলে এসে খেলোয়াড় ও টিম কর্মকর্তার সাথে দেখা করেন এবং খেলোয়াড়দের উজ্জীবিত করতে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন।

১৩ অক্টোবর নেপালের বিপক্ষে খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img