২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার

বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনাটা আসলে কি ছিলো?

- Advertisement -

উইকেটে ছিলোনা তেমন স্পিন। নেহায়তই দিনের আলো বাঁচাতে পেসারদের দিয়ে বোলিং করাতে মানা করেছিলেন আম্পায়ার তাই পাকিস্তান দুপ্রান্ত দিয়ে চালাচ্ছিলো স্পিন। ছাতার মতো ঘিরে রাখা ফিল্ডার থাকলেও নোমান আলী বা সাজিদ খানের বোলিংয়ে ছিলোনা এমন কোন টার্ন বাউন্সের খেলা। এরপরও দিনশেষে বাংলাদেশের স্কোর ৭৬/৭ যার ৬টি উইকেটই নিয়েছেন সাজিদ, মুমিনুল হক রানআউট না হলে সম্ভবত ৭টিই নিতেন সাজিদ, এজাজ প্যাটেল দুদিন আগে ভারতের সাথে যা করেছিলেন সেটি পুনরায় করার একটি সম্ভাবনা তৈরি হত।

কিভাবে সাজিদ খান হয়ে গেলেন এতো ‘আনপ্লেয়েবল’? বাংলাদেশের এলোমেলো, ব্যাখ্যাহীন বা সোজা কথায় ‘অপরিকল্পিত’ ব্যাটিংয়ের বরাত দিয়ে। অথবা হয়তো ‘পরিকল্পনা’ একটা ছিলো মুমিনুল হকদের, তবে সেটি কি কেউ ব্যাখ্যা করতে পারবে? কেন সাদমান ওভাবে আপারকাট করতে গিয়ে আউট হলেন? মুশফিক কেন স্লগ সুইপ করতে গিয়ে মিডউইকেটে ধরা পড়লেন? শেষ জুটিতে মিরাজ কেন আবারো সুইপ করতে গেলেন?

বাংলাদেশ কি টেস্টম্যাচে টি-টোয়েন্টি খেলে এক সেশনে ২০০-২৫০ রান তুলে ফেলার চিন্তা করছিল? বাংলাদেশ কি এই ম্যাচ জয়ের চিন্তা করছিলো?  তাহলে আর্লি উইকেট পড়ার পরও কেন মারকুটে ব্যাটিং করতে গিয়ে উইকেট ছুড়ে আসার ধারা বন্ধ হয়নি?

এখন অবশ্যই বাংলাদেশ ফলো অন এড়াতে চাইছে। সেটি করার জন্যও অবশ্য ২৫ রান বাকি এখনও।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img