১৭ জুলাই ২০২৪, বুধবার

বাজবল নিয়ে এক সেকেন্ডও ভাবি না: অ্যামব্রোস

- Advertisement -

টেস্ট ক্রিকেট দুনিয়ার এক নতুন যুগের সূচনা করেছে ইংল্যান্ড। ইংলিশদের টেস্ট ক্রিকেটে নতুনত্বের শুরুটা অবশ্য বছর দুয়েক আগে থেকে। দ্রুত বেশি রান তুলে প্রতিপক্ষকে দুবার আউট করতে বোলারদের পর্যাপ্ত সময় দেওয়ার যে পরিকল্পনা, সেটিকেই বাজবল নাম দেওয়া হয়েছে।

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলতে বুধবার লর্ডসে নামছে ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অনুমিতভাবেই এই ম্যাচেও বাজবল ঘরানার ক্রিকেট দেখা যাবে। তবে এটা নিয়ে ভাবছেন না ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ফাস্ট বোলার কোর্টনি অ্যামব্রোস। ক্যারিবীয় পেস বোলিং কিংবদন্তির ধারণা, এটা কেবলই একটা চকচকে নাম।

“বাজবল একটা চটকদার নাম, তবে আমি কখনোই একটা সেকেন্ডও এটি নিয়ে ভাবিনি। আমরা জানি অতীতে ইংল্যান্ড ক্রিকেটটা একটু অন্য রকমভাবে খেলত; মনে হয় একটু বেশি ধীরেই খেলত। হঠাৎ করেই সেই দল আক্রমণ করে খেলার সিদ্ধান্ত নিল আর একটা নতুন নামও বানাল। আমি এটা নিয়ে কিছু শুনতে চাই না”- বলছিলেন অ্যামব্রোস

অধিনায়ক বেন স্টোকসের নেতৃত্বে এই ঘরানার ক্রিকেটে সাফল্যের পাশাপাশি ব্যর্থও হয়েছে ইংলিশরা।
অ্যামব্রোস আরও বলেন, “সত্যি কথা হলো, বাজবলকে আমি বেশি গুরুত্ব দিই না। আগের সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আগের সেই অস্ট্রেলিয়া, সব সময়ই তাদের আক্রমণাত্মক সব খেলোয়াড় থাকত। তাই বলি কি, আক্রমণাত্মক খেলাসহ ইংল্যান্ড আজকাল যা করছে, এসব নতুন কিছু নয়।”

২০২২ সালের মে মাস থেকে বেন স্টোকসদের টেস্ট কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন প্রাক্তন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাকালাম। তারপর থেকেই ঘুরছে মোড়। ভক্তরা এক নতুন পরিবর্তন দেখেছেন সেদেশের খেলা, তাকেই নাম দেওয়া হয়েছে ‘বাজবল’। ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ডাকনাম ‘বাজ’ থেকেই ব্যুৎপত্তি এই নামের।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img