১৬ জুন ২০২৪, রবিবার

বার বার একই ভুল হচ্ছে ব্যাটসম্যানদের: মাহমুদউল্লাহ

- Advertisement -

৯৭তম টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি যুগ শুরু করার পর বাংলাদেশ এই প্রথম সাকিব-তামিম এবং মুশফিককে ছাড়া মাঠে নেমেছে। শুরুতে মুশফিকের অনুপস্থিতি নানা প্রশ্ন তৈরী করেছিল। পরে অবশ্য জানা গেছে চোট পাওয়ায় তিনি মাঠে নামেননি। সে যাই হোক সিনিয়রদের মধ্যে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ছাড়া একাদশটাই ছিল তারুণ্যে ভরা। সাকিব-তামিম-মুশফিকের অনুপস্থিতিতে তরুণদের কেউ একজন ম্যাচে হাল ধরার মতো ব্যাটিং করেননি। যা একটু আফিফ চেষ্টা করেছিলেন, ফরম্যাট বদলালেও লিটন-সৌম্যরা বদলাতে পারেনি নিজেদের। ম্যাচটা জমিয়ে তুলার মতো ব্যাটিং করতে ব্যর্থ হয়েছে ব্যাটসম্যানরা। ম্যাচ শেষে অধিনায়কের কন্ঠেও এমন কথা-

“আমি মনে করি মাঠে আমাদের চান্স ছিল, প্রথম কয়েক ওভারে আমরা দ্রুত উইকেট হারিয়েছে। প্রথম দিকে ওভার প্রতি রান ৭ করে আসছিল। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা নিজেদেরকে থিতু করতে পারেননি। আমি মনে করি বোলাররা ভালো বল করেছে বোলারদেরকে কোন দোষ দিবোনা। রান চেসিংটা একটু বেশি ছিল। তবে আমাদের আউট হওয়ার ধরনটা ভালো ছিলনা। আমরা ম্যাচে জিতার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার চেষ্টা করি নাই। চেষ্টা করলে হয়তো এতো বড় ব্যবধানে পরাজয় হতোনা। যেই চান্স নেয়ার দরকার ছিল সেটাই আমরা নিতে পারি নাই”

এমন হারের মধ্যেও কয়েকটা ইতিবাচক দিকও পেয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

“আমার মনে হয় এটি তরুণদের জন্য ভালো একটি সুযোগ, বিশেষ করে নাইম শেখ, আফিফ। দুজন অভিষিক্ত ছিল, তাদের জন্য সুযোগ বিশ্বকে দেখানোর, তারা কতটা ভালো।”

“আমরা হয়তো সবসময় সব অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে একসঙ্গে পাব না। এর সঙ্গে আমাদের মানিয়ে নিতে হবে। কাউকে এগিয়ে আসতে হবে এবং দেখাতে হবে যে বাংলাদেশকে ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য তার আছে।”

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img