NCC Bank
- Advertisement -NCC Bank
৮ আগস্ট ২০২২, সোমবার

বিদায়ের পথে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা!

- Advertisement -

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অন্যতম পরাশক্তি বলা হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়নও ডোয়াইন ব্রাভো-ক্রিস গেইলরাই। এবারের বিশ্বকাপেও তারা এসেছিল ফেভারিট হয়েই। কিন্তু, ক্যারিবিয়ানদের এমন পরিণতি হতে পারে কল্পনাতেও কি ভেবেছিল কেউ! প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাত্তাই পায়নি, দ্বিতীয় ম্যাচে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে আট উইকেটে হেরে ছাড়তে হয়েছে মাঠ। টানা দুই ম্যাচ হেরে পয়েন্ট তালিকার একদম নীচে অবস্থান করছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। সেখান থেকে ফিরতে পারবে তো ক্যারিবিয়ানরা!

দুজনের ৮৩ রানের জুটিতে এসেছে জয়

প্রথমে ব্যাট করে এভিন লুইসের অর্ধশতকে ভর করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্কোরবোর্ডে তুলেছিল ১৪৩ রান। ১৪৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে সাউথ আফ্রিকা। পাওয়ারপ্লে শেষে এগিয়ে কোন দল বলা মুশকিল। ক্যারিবিয়ানদের সংগ্রহ ছিল বিনা উইকেটে ৪৩, সাউথ আফ্রিকার এক উইকেটে ৪২। আপাতদৃষ্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে এগিয়ে মনে হলেও অধিনায়ক কিরন পোলার্ডের চোখ-মুখ কিন্তু সেটা বলছে না। পরিচিত হাসিটাও যেন কোথায় গেছে হারিয়ে, পুরো রাজ্যের হতাশা চোখেমুখে ক্যারিবিয়ানদের!দলীয় চার রানেই টেম্বা বাভুমাকে ফেরানো গেলেও, রেজা হেন্ডরিকস-রাসি ফন ডার ডুসেন মিলে ততোক্ষণে গড়ে ফেলেছেন ৩৮ রানের জুটি। ম্যাচে ফিরতে হলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রয়োজন একটি উইকেটের, কে এনে দিবে পোলার্ডকে সেই কাঙ্ক্ষিত উইকেট!

রানআউট হয়ে প্যাভিলিয়নে বাভুমা

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দশম ওভারে নিজের চতুর্থ ওভারে বল করতে এসে সেই কাঙ্ক্ষিত উইকেটটি এনে দিয়েছেন আকিল হোসেন; প্যাভিলিয়নে ফিরিয়েছেন ভয়ংকর হয়ে উঠতে শুরু করা হেন্ডরিকসকে। ডিপ স্কয়ার লেগে মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। ক্যাচটা মোটেও সহজ ছিল না। কিন্তু, ম্যাচে ফিরতে হলে প্রয়োজন ছিল একটি উইকেটের। ডিপ স্কয়ার লেগে দাড়ানো শিমরন হেইটমায়ারের দুর্দান্ত ড্রাইভে বলটাকে করেছেন তালুবন্দি; ৩৯ রান করে আউট প্রোটিয়া ওপেনার।

দুজনে মিলে গড়েছেন ৫৭ রানের জুটি

দশ ওভার শেষে সাউথ আফ্রিকার সংগ্রহ দুই উইকেটে ৬৬; ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে এক রানে এগিয়ে প্রোটিয়ারা। শেষ দশ ওভারে প্রয়োজন ৭৮ রান; এক-দুইয়ে দলকে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টায় ডুসেন-মার্করাম।  প্রথম ছক্কাটা হাঁকাতে মার্করাম সময় নিলেন মাত্র ছয় বল। ম্যাচটাকে হাত থেকে বেড়িয়ে যেতে দেখে অধিনায়ক পোলার্ড নিজের হাতে তুলে নিলেন বলটা, কিন্তু মার্করাম যে এসেছেন টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটটা কিভাবে খেলতে হয় সেটাই দেখাতে। পোলার্ডের শেষ বলটাতে মিড উইকেটের ওপর দিয়ে মার্করামের পুল এবং ছক্কা।

শেষ পর্যন্ত আর কোনো উইকেট তুলে নিতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দুই ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন সাত রান। প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে মাত্র ২৫ বলে অর্ধশতক মার্করামের; পরের বলে এক নিয়ে দলকে এনে দিয়েছেন আট উইকেটের বড় জয়। ৫১ বলে ৪৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন ডুসেন। ২৭ রানে একটি উইকেট নিয়েছেন আকিল হোসেন।

 

 

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img