২ মার্চ ২০২৪, শনিবার

বিশ্বকাপ খেলা ক্রিকেটার এখন বাস ড্রাইভার

- Advertisement -

জীবন যেখানে যেমন। ক্রিস কেয়ারনেসের কথা মনে আছে?  ২০০০ সালে সৌরভ গাঙ্গুলীর সেঞ্চুরিতে যখন জয়ের স্বপ্ন দেখছিল ভারত, তখন কেয়ারনেসের সেঞ্চুরিতেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। নাইরোবি সেই ফাইনাল থেকে দিনে দিনে সময় হারিয়েছে অনেক, কেয়ারনেস এখন কাজ করেন বাস টার্মিনালে, ঘণ্টায় ১৭ ডলার বেতনে।

ক্রিস কেয়ারনেসকে আপনি চিনতে পারেন তবে শ্রীলঙ্কান সুরাজ রানদিভ খুব বেশি পরিচিত কেউ নন। তবে ছিলেন শ্রীলঙ্কার ২০১১ বিশ্বকাপ স্কোয়াডে। যেই বিশ্বকাপে ফাইনাল খেলেছে শ্রীলঙ্কা, ধোনির ছক্কা আর উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা সাঙ্গাকারার হাসির মোহে আঁড়াল হয়েছে সব। সময়ের আবর্তনে বিশ্বকাপের স্কোয়াডের সদস্য রানদিভ এখন অস্ট্রালিয়ায় বাস চালান। শুধু রানদিভ না এই তালিকায় আছে জিম্বাবুয়ের দুই ক্রিকেটারও।

সময় কতো কিছুই-তো বদলে দেয়। আন্তর্জাতিকের ক্রিকেটের রানদিভের উইকেট সংখ্যা ৮৯, অথচ হয়তো এখন কোনো ক্রিকেট মাঠের পাশ দিয়েই বাস চালিয়ে যাব রানদিভ, সেখানে চলে আন্তর্জাতিক ম্যাচ, হয়তো খেলে শ্রীলঙ্কাও কিন্তু রানদিভ নেই। যদিও স্থানীয় ক্রিকেটে এখনও খেলেন রানদিভ, জেলা পর্যায়ে। ক্রিকেট ছেড়েও যেন ছাড়তে পারেননি।

ক্রিকেট ছেড়ে ভিন্ন পেশা বেছে নেওয়ার ঘটনা নতুন না। ভারতের দুই হাজার সাত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলের সদস্য জগিন্দার শর্মা এখন পুলিশ কর্মকর্তা। জীবন নাকি সবসময় একই ফ্লোতে চলে, তবে যেখানে যেমন, সেখানে তেমন; এইতো জীবন।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img