৩ মার্চ ২০২৪, রবিবার

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে মাঠে নামছে হল্যান্ড, পর্তুগাল, বেলজিয়াম

- Advertisement -

শনিবার রাতে কাতার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ড, ইউরোপিয়ান জোনে রাত এগারোটায় আমস্টারডাম অ্যারেনাতে মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ডস-লাটভিয়া, দুই দলই প্রথম রাউন্ডে হেরেছে। একটু বেশি রাতে আলাদা ম্যাচে নামবে পর্তুগাল এবং বেলজিয়াম।

প্রথম ম্যাচে তুরস্কের কাছে ৪-২ গোলে হারের পর, ডাচদের রক্ষণভাগ নিয়ে বিতর্ক চলছে, খেলার ধরণ নিয়েও রয়ে গেছে প্রশ্ন। গত ম্যাচের মতোই রাইট ব্যাকে ডি লিট, ডিফেন্সিভ মিডে বার্সেলোনা স্টার ডি ইয়ংকে রেখে ৪-৩-২-১ ফরমেশনেই কোচ ফ্র্যাঙ্ক ডি বোর আস্থা রাখেন কিনা, সেটা সময় বলে দেবে। তবে প্রতিপক্ষ লাটভিয়া বলেই নেদারল্যান্ডস যে কোনো বিচারেই ফেভারিট। র‌্যাঙ্কিংয়ে লাটভিয়ার অবস্থান ১৩৬, আর ডাচরা ১৪তম। শেষ তিন দেখায় লাটভিয়ার সাথে সবই জিতেছে হল্যান্ড,  তবে গেল বছর চারটা আন্তর্জাতিক ম্যাচের তিনটাতেই জিতেছে লাটভিয়া।

কাতার বিশ্বকাপের মিশনে যে ম্যাচগুলোতে নেদারল্যান্ডস নিশ্চিতভাবেই পূর্ণ পয়েন্ট ধরে রেখেছে, লাটভিয়ার বিপক্ষে খেলাটা তার মধ্যে অন্যতম হওয়ার কথা। ডাচদের চ্যালেঞ্জটা যে আট বছর পর বিশ্বকাপে কামব্যাক করার! একই গ্রুপের অপর ম্যাচে তুরস্কের প্রতিপক্ষ নরওয়ে, দুই দলই প্রথম ম্যাচ জিতেছে। নিরপেক্ষ ভেন্যু স্পেনের মালাগায় খেলা শুরু সাড়ে এগারোটায়।

গ্রুপ ই-তে প্রথম ম্যাচে বড় জয়টা ছিল চেক রিপাবলিকের, ৬-২ গোলে হারিয়েছিল এস্তোনিয়াকে। তবে প্রথম ম্যাচের মতো, দ্বিতীয় ম্যাচে চেকদের চ্যালেঞ্জটাও অনেক বড়, কেননা প্রতিপক্ষ বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর, বেলজিয়াম। প্রত্যাশিতভাবেই গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে জিতেছিল বেলজিয়ানরা। ইংলিশ ক্লাব ওয়েস্টহ্যামের মিডফিল্ডার থমাস সুচাকের হ্যাটট্রিকে শেষ ম্যাচ থেকে বিশাল জয় পায় চেকরা, বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের শুরুটাও হয়েছে আশা জাগানিয়া। যদিও ২০০৬ এর পর আর ফিফা বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ পায়নি চেক রিপাবলিক। ওয়ার্ল্ড র‌্যাঙ্কিংয়ের টপ টিম, গত বিশ্বকাপের সেকেন্ড রানার আপ বেলজিয়াম গেল চার বছর ধরেই দারুন ফর্মে। বিশ্ব রেংকিং এর এক নম্বর দল হতে যা যা দরকার তার প্রায় সবই রয়েছে বেলজিয়ামের। চেক রিপাবলিক – বেলজিয়াম ম্যাচ রাত একটা পঁয়তাল্লিশে।

একই সময়ে সার্বিয়ার রেড স্টার স্টেডিয়ামে খেলতে যাবে পর্তুগাল। ম্যাচে ২০১৬ ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালই ফেভারিট! অবশ্য প্রথম ম্যাচে বেশ কষ্টেই জিতেছে পর্তুগাল, অন্যদিকে সার্বিয়া হারিয়ে এসেছে আয়ারল্যান্ডকে। দুই দলের ছয় দেখা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে, তিন জয় পর্তুগিজদের। আর পর্তুগিজ ভক্তদের জন্য সবচাইতে বড় খবর, রোনালদোদের কখনোই হারাতে পারেনি সার্বিয়া।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img