২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার

বিয়ের পর ফর্মে ফিরলেন নাসির হোসেন

- Advertisement -

নাসির হোসেন লিগ শুরু করলেন কথা রাখার প্রত্যয় নিয়েই, জাতীয় ক্রিকেট লিগ শুরু হওয়ার আগে তিনি বলেছিলেন এবারের আসরে আটশ থেকে এক হাজার রান করতে চান তিনি। আসরে নিজের প্রথম ইনিংসেই শতক হাঁকানোর দ্বারপ্রান্তে নাসির হোসেন, অপরাজিত আছেন ৯৩ রানে।

এবারো এনসিএলে নাসির খেলছেন রংপুর বিভাগের হয়ে। বিকেএসপিতে রংপুর মুখোমুখি হয়েছে ঢাকা বিভাগের। ঢাকা ৩৬৫ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর ব্যাটিংয়ে নামে রংপুর। সতীর্থরা ব্যর্থতার পরিচয় দিলেও একাই দলের হাল ধরেন নাসির। ১৮৫ বল খেলে ১১ চার ও ২ ছক্কায় ৯৩ রান তুলেন তিনি, তার সাথে উইকেটে অপরাজিত আছেন আলাউদ্দিন বাবু। দলের আর কোনো ব্যাটসম্যান ত্রিশের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি।

৭ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান তুলে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে রংপুর। তৃতীয় দিনে কাঙ্খিত সেঞ্চুরির দেখা পেলে প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটে নাসিরের হবে অষ্ঠম শতক এছাড়াও অর্ধ-শতক আছে ত্রিশটি। ঢাকার পক্ষে নাজমুল  ইসলাম অপু ৩ ও সুমন ইসলাম ২ উইকেট নিয়েছেন। 

স্কোর: ঢাকা বিভাগ ৩৬৫ , রংপুর বিভাগ ১৯৪/৭

 

প্রথম স্তরের অপর ম্যাচে ৭ উইকেটে ৩০৮ রান নিয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছিল খুলনা। ৩ উইকেট হাতে নিয়ে দ্বিতীয় দিন আরো ৬৭ রান যোগ করে দলটি। দলের পক্ষে সবোর্চ্চ ৯৯ রান করে রান আউট হন তুষার ইমরান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে সুবিধাজনক অবস্থায় নেই সিলেট।মাসুম খানের বোলিং তোপে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে এবাদত রাহীর দলটা, ৭৮ রানেই ৬ উইকেট হারায় তারা। সিলেটের পক্ষে সবোর্চ্চ ৩৭ রান এসেছে ইমতিয়াজ হোসেনের ব্যাট থেকে।

স্কোর: খুলনা বিভাগ ৩৭৫, সিলেট বিভাগ ১৩০/৮

 

সেঞ্চুরি দিয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেট লিগের যাত্রা শুরু করলেন মার্শাল আইয়ুব। তার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২১তম সেঞ্চুরিতে বরিশাল বিভাগীয় স্টেডিয়ামে স্বাগতিক দলের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের পথে ঢাকা মেট্রো।

মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিন শেষে ঢাকা মেট্রোর রান ৭ উইকেটে ৩২৪। মার্শালের ব্যাট থেকে এসেছে ১১২ রান। জাহিদুজ্জামান খান ৬০, জাবিদ হোসেন ৪১ রানে সাজঘরে ফিরেছেন। শহীদুল ইসলাম ৪২ ও আবু হায়দার রনি ২১ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন। এর আগে বরিশাল বিভাগ প্রথম দিন ২৪১ রানে গুটিয়ে যায়। ঢাকার এখন পর্যন্ত লিড ৮৩ রান।

জাহিদুজ্জামান ৭ ও শামসুর ১২ রানে দিন শুরু করেন। কিন্তু দিনের শুরুতেই শামসুর আউট হন, সোহাগ গাজীর বলে আবু সায়েমের হাতে ক্যাচ দেন ২৩ রানে। তৃতীয় উইকেটে মার্শাল ও জাহিদুজ্জামান ৯৩ রানের জুটি গড়েন। তাতে ঢাকা বড় সংগ্রহ পায়।

স্কোর: বরিশাল বিভাগ  ২৪১, ঢাকা মেট্রো ৩২৪/৭

 

 

রাজশাহীতে সেঞ্চুরির অপেক্ষায় থাকা শাহাদাত হোসেন দ্বিতীয় দিনে তুলে নিয়েছেন শতক, ২৫৬ বলে ১০৮ রান করে ফরহাদ রেজার বলে কাটা পরেন তিনি। চট্টগ্রামের ইনিংসও থামে ২৮৭ রানে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে রাজশাহী বিভাগ, মাত্র ১৫২ রানেই থামে রাজশাহীর ইনিংস। চট্টগ্রামের পক্ষে নোমান চৌধুরি ৪ ও মাহাদী হাসান রানা নিয়েছেন ৩ উইকেট । নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ১৭৮ রানের লিড নিয়েছে চট্টগ্রাম।

স্কোর: চট্টগ্রাম বিভাগ  ২৮৭ ও ৪৩/৫ , রাজশাহী বিভাগ ১৫২

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img