২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

বৃথা গেলো আইচের একার লড়াই: প্রথম ওয়ানডেতে ছোট টাইগারদের হার

- Advertisement -

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে যখন আউট হয়ে ফিরে যাচ্ছেন আইচ মোল্লাহ, তাঁর নামের পাশে রান ৮৬; বাংলাদেশের দলীয় স্কোর ১৮৬। এর মাঝে ১৮ রান শ্রীলঙ্কার বোলাররা অতিরিক্ত দিয়েছেন; অর্থাৎ বাংলাদেশের বাকি ১০ জন ব্যাটসম্যান মিলে করেছেন ৮২ রান।

আইচের এই নিঃসঙ্গ লড়াই ও বাকিদের ব্যাটিং ব্যর্থতায় ডাম্বুলায় সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে ২২৯ রানের মাঝারি টার্গেট তাড়া করতে গিয়ে মাত্র ১৮৬ রানে গুটিয়ে গিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯; হেরেছে ৪২ রানে।

Image

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে নতুন বল হাতে দুই যুব টাইগার পেসার আশিকুর জামান ও রিপন মন্ডলের গতির তোড়ে ভালোই নাকাল হয় লঙ্কান যুবারা। পাওয়ারপ্লের প্রথম ১০ ওভারেই সাদীশ জয়াবর্ধনে ও শেভন ড্যানিয়েলকে ফেরান রিপন। পাওয়ারপ্লে শেষ হওয়ার পরের বলেই জিওয়াকা শাসিনকেও আউট করেন আরেক পেসার গোলাম কিবরিয়া।

রিপন মন্ডল তুলেছেন নতুন বলে ঝড়

এরপর লঙ্কানদের হাল ধরেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পাওয়ান পাথিরাজা। প্রথমে সাদিশা রাজাপাকশের সাথে ৫৩ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেন, এরপর রাভীন ডি সিলভার সাথেও ৮০ রানের জুটি গড়েন এই বাঁহাতি। আউট হওয়ার আগে করেন ৮৮ বলে ৬৭ রান। পাওয়ানের আউটের পরই আবারো ধ্বস নামে লঙ্কান ব্যাটিং অর্ডারে; ধ্বস নামান পেসাররাই। লেজের দিকের ব্যাটসম্যান ইয়াসিরু রদ্রিগোর ১৫ বলে ২৫* রানের ক্যামিওর কল্যাণে ২২৮ রানের পুঁজি পায় শ্রীলঙ্কা। শুরুর দিকে দুর্দান্ত বোলিং করা রিপন শেষদিকে এলোমেলো বল করেছেন। সব মিলিয়ে ইনিংসে ৩ উইকেট নিলেও গুণেছেন ৫৯ রান।

২২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে কখনোই গতি পায়নি বাংলাদেশের ইনিংস। প্রথম চারটি উইকেট গেছে জোড়ায় জোড়ায়, মাত্র চার রানের ব্যবধানে। দলীয় ৩১ রানেই দুই ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম ও ইফতেখার হোসেন ফিরে যান; ৩৫ রানে প্রান্তিক নওরোজ ও অধিনায়ক মেহরাব হোসেন হন শেভন ড্যানিয়েলসের শিকার।

আরিফের সেই রানআউট

একপ্রান্তে উইকেটে আসা যাওয়ার মিছিলের বিপরীতে অপরপ্রান্তে হাল ধরে রেখেছিলেন আইচ মোল্লাহ। আরিফুল ইসলামকে সাথে নিয়ে ৭০ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের পথও দেখাচ্ছিলেন। তবে আচমকা একটি দূরূহ সিঙ্গেল বের করার ‘ইচ্ছে’ জাগায় রান আউট হন আরিফুল। তার ৩৮ আইচের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের ইনিংস; এছাড়া দুই অঙ্ক পেরিয়েছেনই মাত্র একজন।

টাইগার যুবাদের সম্মান সামান্য রক্ষা হয়েছে আইচের ব্যাটে

এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ তবে আইচ মোল্লাহ ছোটাতে থাকেন স্ট্রোকের বন্যা। হয়তো ভেবেছিলেন ‘৫০ ওভার খেললে কিছু হলেও হতে পারে’, হয়তো চেয়েছিলেন সেঞ্চুরি। তবে শেষরক্ষা করতে পারেননি। ৯৩ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলার পথে মেরেছেন নয়টি বাউন্ডারি।

২৯ রানে ৪ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কান যুবাদের সেরা বলার ত্রেভিন ম্যাথিউজ।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img