১৭ জুলাই ২০২৪, বুধবার

বৃথা গেল রিশাদের ফিফটি, সিরিজ হারল বাংলাদেশ

- Advertisement -

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় টি-টোয়েন্টি জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ১৭৫ রান। বড় রান তাড়ায় শুরুটা যেমন করা ছিল, টাইগাররা তেমনটা তো করতে পারেনি। উল্টো নিজেদের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার শঙ্কা জাগিয়েছিল। তবে রিশাদ হোসেন-তাসকিন আহমেদ-শেখ মাহেদীর কল্যাণে একটা সময় অল্প হলেও জয়ের স্বপ্ন জাগিয়েছিল। এই তিনজনের ইনিংস বাংলাদেশের জন্য যথেষ্ট হয়নি। টাইগাররা হেরেছে ২৮ রানের ব্যবধানে।

রান তাড়ায় তৃতীয় ওভারেই প্রথম উইকেট হারায় নাজমুল হোসেন শান্তর দল। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার বলে দাসুন শানাকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন লিটন কুমার দাশ। পরের ওভারে নাজমুল শান্ত, তাওহীদ হৃদয় ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে পরপর তিন বলে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক করেন নুয়ান থুসারা।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দারুণ ব্যাটিং করা জাকের আলী অনিকও পারেননি তেমন কিছু করতে। সৌম্য সরকার ১০ বলে ২ বাউন্ডারিতে করেছেন ১১ রান।

৩০ বলে ৫৩ রানের ইনিংস খেলেছেন রিশাদ হোসেন

টাইগাররা হারের ব্যবধান কমাতে পেরেছে মূলত রিশাদ হোসেন ও শেখ মাহেদী হাসানের কল্যাণে। ১৯ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৯ রান করেছেন মাহেদী। তবে রিশাদ ঠিকই তুলে নিয়েছেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি। মাহিশ থিকসানার বলে তুলে মারতে গিয়ে আউট হওয়ার আগে ৩০ বলে করেছেন ৭ ছক্কায় ৫৩ রান। তাসকিন আহমেদের ব্যাট থেকে এসেছে ২০ বলে ৩১ রানের ইনিংস।

শ্রীলঙ্কার হয়ে ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন নুয়ান থুসারা। ২টি উইকেট শিকার করেছেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা।

চলমান টি-টোয়েন্টি সিরিজের গত দুই ম্যাচে টসে জিতেছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। এদিনও টস ভাগ্য সহায় হয়নি শ্রীলঙ্কার। টসে জিতে আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতে এক মুহুর্তও দেরি করেননি শান্ত। টাইগার অধিনায়কের লক্ষ্যটা পরিস্কার, যতটা সম্ভব কম রানে প্রতিপক্ষকে আটকে দেওয়া। তবে সিলেটের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে সেই কাজটা করতে পারেনি বাংলাদেশের বোলাররা।

আভিষ্কা ফার্নান্দোর পরিবর্তে একাদশে সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে পারেননি ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। তাসকিন আহমেদের বলে সৌম্য সরকারকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ১২ বলে করেছেন মাত্র ৮ রান।

৫৫ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলেছেন কুশল মেন্ডিস

আরেক ওপেনার শুরু থেকেই টাইগার বোলারদের উপর চড়াও হয়ে খেলেছেন। ৩৫ বলে চলমান সিরিজের দ্বিতীয় ফিফটি তুলে নেন ডানহাতি এ ব্যাটার। এরপর আরও ভয়ংকর হয়ে উঠেছিলেন তিনি, ছুটছিলেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি দিকে। কিন্তু ৮৬ রানে থামতে হয়েছে তাকে। ৫৫ বলের ইনিংসে ৬টি করে বাউন্ডারি ও ছক্কা মেরেছেন কুশল।

কামিন্দু মেন্ডিস, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসরা পারেননি তেমন কিছুই করতে। দাসুন শানাকা করেছেন ৯ বলে ১৯ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। রিশাদ হোসেন ২ উইকেট নিতে খরচ করেছেন ৪ ওভারে ৩৫ রান। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও শরীফুল ইসলাম।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img