৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার

‘মারদাঙ্গা’ প্যারাগুয়ের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ড্র

- Advertisement -

গোটা ম্যাচে ফাউল হয়েছে ২৯টি, যার ২০টিই করেছে প্যারাগুয়ের ফুটবলাররা। প্রায় প্রতি মিনিটেই রেফারীকে বাজাতে হচ্ছিল বাঁশি। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের নিজেদের ৯ম ম্যাচে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে এমনই এক ম্যাচে  গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে আর্জেন্টিনা।

ইনজুরির কারণে এই ম্যাচ খেলেননি আর্জেন্টিনার স্ট্রাইকার লাউতারো মার্তিনেজ। ম্যাচের প্রায় পুরোটা সময় রক্ষণাত্মকই খেলেছে প্যারাগুয়ে, অপরদিকে ভালো খেলেও আর্জেন্টিনা খুলতে পারেনি গোলমুখ। এর অবদান প্যারাগুয়ের জমাট রক্ষণদূর্গের যেমন, তেমনই তাদের গোলকিপার অ্যান্টনি সিলভার, আবার তেমনই প্যারাগুয়ের মারকুটে খেলার ধরণেরও যথেষ্ট।

বরাবরের মতো আক্রমণে না উঠে এই ম্যাচে একটু নিচ থেকে খেলা নিয়ন্ত্রণ করছিলেন লিওনেল মেসি। তাঁর যোগান দেওয়া বলে অ্যানহেল দি মারিয়া, জোয়াকুইন কোরেয়ারা সৃষ্টি করছিলেন একের পর এক সুযোগ, কিন্তু প্যারাগুয়ের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়েরা প্রতিহত করছিল প্রতিটিই। গোলকিপার অ্যান্টনি সিলভা হয়ে গিয়েছিলেন চীনের প্রাচীর, ৪১ মিনিটে কর্নার থেকে জার্মান পেজেলার একটি হেড সরাসরি ঠেকিয়ে দেন সিলভা। ৮৩ ও অতিরিক্ত সময়ের ৯৪ মিনিটে মেসির দুটি দূরপাল্লার শটও ঠেকিয়ে দেন এই গোলকিপার।

Image

এছাড়াও আর্জেন্টিনার অনেক সুযোগ নষ্ট হয়েছে প্যারাগুয়ের কড়া ট্যাকল ও ফাউলের জের ধরে। প্রথমার্ধের চেয়ে দ্বিতীয়ার্ধে যেন আরো বেশি মারকুটে হয়ে গিয়েছিল স্বাগতিক প্যরাগুয়ে। ৫০ থেকে ৮০- এই ৩০ মিনিট যেন খেলার চলার চেয়ে থেমেছেই বেশি, সিংহভাগই প্যারাগুয়ের খেলোয়াড়দের দায়। দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বেশ ভালো কিছু সুযোগও সৃষ্টি করেছিল প্যারাগুয়ে; প্রায় গোল করেই বসেছিলেন অ্যানহেল রোমেরো।

এই ড্রতে ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানেই থাকল আর্জেন্টিনা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img