৬ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার

না ফেরার দেশে গার্ড মুলার

- Advertisement -

ফুটবল কিংবদন্তি গার্ড মুলার আর নেই। রোববার সকালে মারা গেছেন জার্মানির হয়ে ১৯৭৪ বিশ্বকাপজয়ী এই তারকা। উল্লেখ্য ১৯৭৪ বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন জার্মানির ইতিহাসের সর্বকালের অন্যতম সেরা এই খেলোয়াড়। ক্লাব ফুটবল খেলতেন বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে, তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বাভারিয়ানরা। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

বায়ার্ন এবং জার্মানির জার্সিতে গোলের পর গোল করে গেছেন গার্ড মুলার। বায়ার্নের হয়ে এই স্ট্রাইকার ৬০৭ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে করেছেন ৫৬৬ গোল। ৩৬৫ গোল করে এখনো বুন্দেসলিগার সর্বকালের সেরা গোলদাতা মুলার। এছাড়া সাতবার হয়েছিলেন মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা। জার্মানির হয়ে মাত্র ৬২ ম্যাচেই করেছিলেন ৬৮ গোল।

১৯৭০ সালে মুলার জিতেছিলেন ব্যালন-ডি-অর। বিশ্বকাপে ১৪ গোল করা মুলার ২০০৬ বিশ্বকাপ পর্যন্ত ছিলেন বিশ্বকাপের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তার মৃতুতে শোক প্রকাশ করেছে বায়ার্ন মিউনিখ।

“আমরা আজকে নিস্তব্ধ! ৭৫ বছর বয়সে মারা যাওয়া গার্ড মুলারের জন্য ক্লাব এবং ক্লাবের সকল ভক্তরা শোক প্রকাশ করছে’- বিবৃতিতে বায়ার্ন মিউনিখ

১৯৬৪ সালে তিনি বায়ার্নে যোগ দেন। বায়ার্নের জার্সিতে চারবার জিতেছেন বুন্দেসলিগা এবং জার্মান কাপের শিরোপা। তিনবার জিতেছেন ইউরোপিয়ান কাপ। জার্মানির হয়ে ১৯৭২ ইউরো জয়ের পাশাপাশি ১৯৭৪ সালে জিতেছেন বিশ্বকাপ। ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তার গোলেই জয় পায় জার্মানি। অবসরের পর বায়ার্নের যুবদলের হয়ে কোচিং করিয়েছেন মুলার।

১৯৮১ সালে অবসর নেওয়ার কয়েক বছর বাদে আবার জার্মানিতে ফিরে আসেন মুলার। তবে খেলা পরবর্তী জীবনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারেননি। আস্তে আস্তে জড়িয়ে পড়েন অ্যালকোহলের নেশায়। এরপর নিজের ক্লাব বায়ার্নের সহযোগিতায় মদের নেশা থেকে মুক্তি পান। তবে ২০১০ এর দিকে তার মধ্যে অ্যালঝেইমার্স নামক রোগের লক্ষণ দেখা দেয়। এটা একপ্রকার ভুলে যাওয়া রোগ। ২০১৩ সালে শেষবার তাকে জনসম্মুখে দেখা যায়, দুই বছর বাদে বাভারিয়ানরা নিশ্চিত করে তার অ্যালঝেইমার্সই হয়েছে। ২০১৯ সালের এপ্রিলে জার্মান ফুটবলের ‘হল অব ফ্রেমে’ জায়গা পান এই কিংবদন্তি।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img