৭ ডিসেম্বর ২০২২, বুধবার

মেসি মাঠে নামলেই যেন রেকর্ড!

- Advertisement -

মারাকানায় ২০১৪ বিশ্বকাপ ফাইনালে কান্নায় ভেঙ্গে পড়া লিওনেল মেসি আবার সেই মারাকানার কাছে, খুব কাছে। চলতি কোপা আমেরিকার ফাইনালও যে ঐ মারাকানাতে। মেসির সামনে শাপ মোচনের সুযোগ, আকাশী-সাদাদের পুরো দলটাকেই প্রায় একা কাঁধে বয়ে নিয়ে চলছেন, ওই ট্রফিটাও হয়তো ক্ষুদে জাদুকরেই প্রাপ্য।

একের পর এক রেকর্ড ভাঙ্গছেন, নতুন রেকর্ড গড়ছেন, রথি-মহারথি সবাইকেই ছাড়িয়ে যাচ্ছেন, যেন ছাড়িয়ে গেছেন নিজেকেও। তার ফ্রিক দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন বেশ পুরোনো। মেসি সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে চলছেন মাঠে; এবারের কোপা, ইউরো মিলিয়ে ফ্রি-কে গোল হয়েছে দুটো; সেই দুই গোলই আবার মেসির পা থেকে।

রোববার ভোরে ইকুয়েডরের বিপক্ষে আর্জেন্টিনা জিতেছে তিন গোলে, যার সবগুলোতেই আছে মেসির অবদান। এক গোল করে লাতিন অঞ্চলের সর্বকালের সেরা গোল স্কোয়ার হওয়ার খুব কাছে, পেলের সাতাত্তর গোল থেকে লিও আছেন এক গোল দূরে। শুধু গোল করা না মেসি গোল করানোর দিক থেকেও সেরাদের সেরা; আন্তর্জাতিক মেজর টুর্নামেন্টের নকআউট পর্বে কুড়ি গোলে আছে অবদান রেখেছেন মেসি; এই লিস্টে তার নামটাই সবার উপরে।

ছবি: ইন্টারনেট
মেসি যেন জীবনান্দের মতোই। ছবি: ইন্টারনেট

কোপায় মেসি যেন আছেন চারের বৃত্তে; চার গোলের সাথে চার এসিস্ট; পাঁচ ম্যাচ খেলে লিও ম্যাচসেরাও হয়েছেন চারবার। লাতিন ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের এই আসরেই গড়ছেন আর্জেন্টিনার ইতিহাসের সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড। দেশটির সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ডটোতো অনেক আগে থেকেই তার দখলে।

ছোট্ট মেসির শরীরে বাসা বেঁধেছিল কঠিন রোগ; ক্রিপ্টোনেট; রোজারিওর সেই ছোট্ট লিও পরবর্তীতে ক্যাসেলডেফিস থেকে ন্যুক্যাম্প হয়ে জয় করে নিয়ে নিয়েছেন পুরোবিশ্ব। রোনালদিনহোর কোলে চড়ে বার্সেলোনার জার্সিতে সেদিন নিজের উচ্চতাকে ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন মেসি, হয়তো আকাশেরও খুব কাছে। লিও এখন সেই আকাশেরই উজ্জ্বলতম নক্ষত্র।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img