৭ ডিসেম্বর ২০২২, বুধবার

ম্যান সিটিকে রুখবে; সাধ্য কার ?

- Advertisement -

পেপ গার্দিওয়ালা যেই একাদশই মাঠে নামাচ্ছেন, হতাশ করছেন না কেউই। কাকে রেখে কাকে নামাবেন, সুখের সময় পার করছেন গার্দিওয়ালা। সব মিলে চারটি কম্পিটিশনে শিরোপার রেসে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও এবার শিরোপার অন্যতম দাবিদার। বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে সিটিজেনরা। দুই লেগ মিলে ম্যানসিটি ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে।

আগের লিগ ম্যাচে অ্যাগুয়েরো পুরো ম্যাচ খেলেছিলেন, ১৪ মাস পর গোল পান। দুই সেন্টার ফরোয়ার্ড অ্যাগুয়েরো এবং জেসুসকে ছাড়াই প্রথম একাদশ মাঠে নামান ম্যানসিটি কোচ। ম্যানসিটির হোম ম্যাচ, করোনার বিধিনিষেধ থাকায় খেলা হয় হাঙ্গেরিতে।

ম্যানসিটির পাসিং এবং গতিময় ফুটবলে শুরুতেই দিক হারায় মনশেনগ্লাডবাখ।  প্রথম সুযোগটা পেয়েছিলেন সিটির ফোডেন। জোয়াও ক্যানসেলোর পাস থেকে বল ওভার দ্য টপ দিয়ে বাহিরে পাঠিয়ে দেন। অবশ্য খুব দ্রুতই লিড পায় ম্যানসিটি। ১২ মিনিটে ডিবক্সে বল পান রিয়াদ মাহারেজ, বাড়িয়ে দেন ডি ব্রুইনেকে। ২০ গজ দূর থেকে জোড়ালো শটে অবাক করা গোল করেন এই নরওয়েজিয়ান। ডি ব্রুইনের পায়ে চলতি মৌসুমে গোলের সেঞ্চুরি পূর্ণ করে ম্যানসিটি।

ডি ব্রুইনে ব্যবধান বাড়ানোর আরো দুটি সুযোগ পান। ৩০ গজের মধ্যে ফ্রি কিক পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন। ১৮ মিনিটে স্কোরশিটে নাম উঠান গুনদোয়ান। প্রায় মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে ফোডেন পাস দেন ডি-বক্সের সামনে। বল নিয়ে দ্রুত ছুটে যান গুনদোয়ান। পোস্টের সামনে গিয়ে বাকানো শটে গোলরক্ষকে বোকা বানান। চলতি মৌসুমে ১৫টা গোল হয়ে যায় জার্মান মিডফিল্ডারের।

শেষ ১৫ মিনিটের জন্য মাঠে নামেন সার্জিও অ্যাগুয়েরো। তবে স্কোরশিটে নাম উঠাতে পারেননি আর্জেন্টাইন। ২-০ গোলের জয়ে টানা চতুর্থবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটি।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img