২৩ এপ্রিল ২০২৪, মঙ্গলবার

যেভাবে মুশফিকের কামব্যাকের পেছনে ভূমিকা রেখেছেন সালাহ উদ্দিন

- Advertisement -

বিপিএল, বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট। সেই টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামলে যে কেউই নার্ভাস হবে, মুশফিক হাসানও হয়েছিলেন। সেই নার্ভাসনেসের বলি, প্রথম ওভারেই ১৯ রান। ঐ ম্যাচের পর ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪; পাক্কা এক মাস একাদশের বাইরে ছিলেন মুশফিক। সেই সুযোগও পেতেন না, যদি মুস্তাফিজুর রহমান ইনজুর্ড না হতেন।

কামব্যাকের সুযোগ পেয়ে তিন ম্যাচে মুশফিক নিয়েছেন ৬ উইকেট। এর মধ্যে সাকিব আল হাসান কিংবা মুশফিকুর রহিমের মতো বড় ব্যাটারের উইকেটও আছে।

“সত্যি কথা বলতে গেলে প্রথম ম্যাচটায় আমি একটু নার্ভাস ছিলাম। প্রথম ওভারেই ১৯ রান দিয়েছিলাম। তরুণ একজন ক্রিকেটারের জন্য প্রথম ম্যাচে ১৯ রান নিয়ে পরে ১০টা (৮টি) ম্যাচ আমি বাইরে বসেছিলাম, আমার জন্য খারাপ লেগেছিল”

আগের ম্যাচের প্রেস কনফারেন্সে মুশফিকের বোলিংয়ের পাশাপাশি তার দৃঢ় মানসিকতার প্রশংসাও করেছিলেন কোচ মোহাম্মদ সালাহ উদ্দিন। মুশফিক শোনালেন, কিভাবে ঐ খারাপ সময় থেকে বের হতে দেশসেরা কোচ তাকে সাহায্য করেছেন।

“আমার কাছে মনে হয়েছে যে, আমি প্রথম ম্যাচে খারাপ করে ব্যর্থ হয়ে যাইনি, আমি অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। আমি সালাহ উদ্দিন স্যারের সাথে ভালোভাবে কাজ করেছি। দিনের পর দিন উনার সাথে সামনাসামনি কথা বলেছি, কীভাবে আমি আবার নতুন করে শুরু করব, কীভাবে আমি বিপিএলে জ্বলে উঠব। স্যার আমাকে রুমে ডেকে অনেক কথা বলেছেন, দেখতে পারছেন এখন, আলহামদুলিল্লাহ”

ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ৩.৪ ওভারে ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন মুশফিক হাসান। শেষ ওভারে ৮ রান ডিফেন্ড করতে হতো, কিন্তু পারেননি। তবুও দিনশেষে মুশফিকের বোলিংকে লেটার মার্কস দিতেই হবে।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img