২১ জুলাই ২০২৪, রবিবার

রংপুরকে হারিয়ে ফাইনালে বরিশাল

- Advertisement -

বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রংপুর রাইডার্সকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ফরচুন বরিশাল। এরই মধ্য দিয়ে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের অদৃশ্য লড়াইয়ে জিতল বরিশাল অধিনায়ক।

টসে জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন তামিম। বরিশাল অধিনায়কের লক্ষ্যটা পরিস্কার, যতটা দ্রুত সম্ভব শেখ মাহেদী হাসান-জিমি নিশামদের আটকে দেওয়া। রংপুরের ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই দুই উইকেট নিয়ে বরিশালকে উড়ন্ত শুরু এনে দেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। মাহেদীর পর সাকিবকেও প্যাভিলিয়নের পথ ধরান বরিশাল অলরাউন্ডার।

নিকোলাস পুরান ১২ বলে ৩ রান করে রংপুর দর্শকদের শুধু হতাশাই বাড়িয়েছেন। জিমি নিশাম চেষ্টা করেছিলেন, তবে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি কিউই অলরাউন্ডার। ২২ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ২৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তিনি। মোহাম্মদ নবি-নুরুল হাসান সোহানরা চেষ্টা করেও পারেননি তেমন কিছুই করতে।

রংপুর মূলত ১৪৯ রান সংগ্রহ করতে পেরেছে শামীমের কল্যাণে। আবু হায়দার রনির সাথে মাত্র ৩১ বলে ৭২ রানের জুটি গড়েন তিনি। তরুণ বাঁহাতি এ ব্যাটার শেষদিকে মিরপুরে তুলেছিলেন ঝড়। ২০ বলে ফিফটি পূর্ণ করা শামীম, শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ২৪ বলে ৫টি করে বাউন্ডারি ও ছক্কায় ৫৯ রানে।

বরিশালের হয়ে ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছেন জেমস ফুলার। দুটি উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। একটি করে উইকেট শিকার করেছেন কাইল মেয়ার্স ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

রান তাড়ায় শুরুটা ভাল করতে পারেনি বরিশাল। প্রথম ৩ ওভারে মাত্র ১৫ রান স্কোরবোর্ডে যোগ করেন মিরাজ ও তামিম। বরিশাল অধিনায়ক এদিন পারেননি বড় ইনিংস খেলতে। মিরাজও ফিরেছেন দ্রুত।

তবে মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকার ধরেন দলের হাল। দুজনের জুটিতে ৩৭ বলে ওঠে ৪৭ রান। সৌম্য ১৮ বলে ২২ রান করে ফিরলে ভাঙ্গে সেই জুটি। এরপর ১৫ বলে ৩ ছক্কা ও ১ বাউন্ডারিতে ২৮ রানের ইনিংস খেলে বরিশালের জয়কে হাতের মুঠোয় এনে দেন কাইল মেয়ার্স। মুশফিক শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ৩৮ বলে ৪৭ রান করে।

রংপুরের হয়ে ৪ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন আবু হায়দার রনি।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img