২ মার্চ ২০২৪, শনিবার

রাজশাহীতে চট্টগ্রামের জয়ের নায়ক রানা

- Advertisement -

জাতীয় ক্রিকেট লিগে চতুর্থ দিনের লাঞ্চের আগেই জিতেছে ৩ দল। রাজশাহী বিভাগকে ৮৮ রানে হারিয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। বরিশালকে হারিয়েছে ঢাকা মেট্রো। আরেক ম্যাচে সিলেট বিভাগকে হারিয়েছে খুলনা।

রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে চতুর্থ ও শেষ দিনে জেতার জন্য রাজশাহীর দরকার ছিল ১৩৬ রান, চট্টগ্রামের ৫ উইকেট। রাজশাহীর টার্গেট ছিলো ২৮৩।

ম্যাচ সেরা মেহেদি রানার বোলিং তোপে শুরু থেকেই চাপে থাকা রাজশাহী দ্বিতীয় দিনেও উইকেট হারাতে থাকে খুব দ্রুত। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে একাই লড়েছেন জুনায়েদ সিদ্দীকি, ৬৮ রানে অপরাজিত থাকলেও উইকেটে জুনায়েদকে সঙ্গ দিতে পারেন নি কোন ব্যাটসম্যান। ৯ উইকেটে ১৯৪ তুলে থামে রাজশাহীর ইনিংস।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৫ রানে ৪ উইকেট নিয়ে চ্টগ্রামের জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন মেহেদি রান, প্রথম ইনিংসেও নিয়েছিলে ৩ উইকেট, সবমিলে ম্যাচ ৭ উইকেট। এছাড়া তিনটা উইকেট নিয়েছেন ইরফান হোসেন।

স্কোর: চট্টগ্রাম বিভাগ ২৮৭ ও ১৪৭, রাজশাহী বিভাগ ১৫২ ও ১৯৪                                                                              ফলাফল: চট্টগ্রাম ৮৮ রানে জয়ী 

 

সিলেট বিভাগকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে খুলনা বিভাগ। তৃতীয় দিনে সিলেট ফলো-অনে পড়ায় অনেকটা জয় নিশ্চিত হয়ে যায় খুলনার।

তবে দ্বিতীয় ইনিংসে জাকির হাসানের ব্যাটে ম্যাচ বাঁচার স্বপ্ন দেখলেও ১৪০ রান করে জাকির আউট হলে সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে যায় সিলেটের। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেটের বিনিময়ে জয় তুলে নেয় খুলনা। ম্যাচ সেরা হয়েছেন জাকির হাসান।

স্কোর: খুলনা ৩৭৫ ও ৭৩/২, সিলেট  ১৩৪ ও ৩০৮                                                                                                              ফলাফল : খুলনা ৮ উইকেটে জয়ী 

 

চট্টগ্রামের মতো জয় দিয়েই জাতীয় ক্রিকেট লিগ শুরু করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন। বরিশাল বিভাগীয় স্টেডিয়ামে স্বাগতিক দলকে হারিয়েছে ৮ উইকেটে।

স্কোর বোর্ডে ৭ উইকেটে ১৭৭ রান নিয়ে শেষ দিনের খেলা শুরু করে বরিশাল। তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে লিড ছিল মাত্র ৫ রানের। দিনের প্রথম ঘণ্টায় ৩১ রান যোগ করতেই আউট হন বরিশালের শেষ তিন ব্যাটসম্যান। ঢাকা মেট্রোর বাঁহাতি পেসার আবু হায়দার রনি নেন ৩ উইকেট। মাত্র ৩৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট হারায় ঢাকা মেট্রো। দলীয় ৩০ রানে আনিসুল ইসলাম ইমন আউট হন। তিনে নামা শামসুর রহমান শুভ আউট হন ৪ রানে। দুটি উইকেটই নেন স্পিনার তানভীর ইসলাম। জাহিদুজ্জামান ১৫ ও মার্শাল আইয়ুব ১ রানে অপরাজিত থেকে ঢাকা মেট্রোর জয় নিশ্চিত করেন।

দলের অধিনায়ক মার্শালের ১১২ রানের ইনিংস বাদেও সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন ফাস্টবোলার শহিদুল ইসলাম। সেঞ্চুরি বাদেও দুই ইনিংস মিলিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন, অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের জন্য ম্যাচসেরার পুরস্কারও শহিদুল ইসলামের।

স্কোর: বরিশাল  ২৪১ ও ২০৮,  ঢাকা মেট্রো ৪১৩ ও ৩৭/২                                                                                                ফলাফল: ঢাকা মেট্রো ৮ উইকেটে জয়ী 

 

বিকেএসপিতে রংপুর বিভাগকে ৮০ রানে হারিয়েছে ঢাকা বিভাগ। নাসির হোসেন শতকের পর ৪ উইকেটে নিয়ে রংপুরকে জয়ের স্বপ্ন দেখালেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় হারতে হয়েছে রংপুরকে। ঢাকার পক্ষে নাজমুল ইসলাম নিয়েছেন ৬ উইকেট।

দ্বিতীয় ইনিংসে ২৬৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৮৩ রানেই গুটিয়ে যায় রংপুরের ইনিংস। প্রথম ইনিংসে শতক হাঁকানো নাসির দ্বিতীয় ইনিংসে করেছেন ১৬ রান। নাইম ইসলাম ছাড়া সুবিধা করতে পারেননি আর কোনো ব্যাটসম্যান, ১৯৪ বলে ৬১ রান করে আউট হওয়ার পর  ১৮৩ রানেই থামে রংপুর বিভাগের ইনিংস। ম্যাচ সেরা নাজমুল ইসলাম।

স্কোর: ঢাকা বিভাগ ৩৬৫ ও ১২৮, রংপুর বিভাগ ২৩০ ও ১৮৩                                                                                            ফলাফল: ঢাকা বিভাগ ৮০ রানে জয়ী 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img