৬ অক্টোবর ২০২২, বৃহস্পতিবার

রিয়াদের ‘ফিফটি’তে বাংলাদেশের ২৯০

- Advertisement -

হারারেতে টস ভাগ্য কিছুতেই যেন বাংলাদেশের পক্ষে যাচ্ছে না। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডের মতো দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেটে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৯০ রান। টাইগারদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮০* রান করেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

দলের নিয়মিত ব্যাটার লিটন দশ ইনজুরিতে থাকায় এনামুল হক বিজয়কে নিয়ে ওপেনিংয়ে নামেন তামিম ইকবাল। বিজয় ধীরেসুস্থে ব্যাটিং করলেও শুরু থেকেই ইতিবাচক ব্যাটিং করেছেন তামিম। দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৫৫তম ফিফটি হাঁকান বাঁহাতি এই ওপেনার। ৪৫ বলে ১ ছক্কা ও ১০ চারের সাহায্যে তুলে নেন এই সিরিজের টানা দ্বিতীয় ফিফটি। তবে এর দুই বল পরেই তানাকা চিভাঙ্গার বলে তাকুদজোয়ানাশে কাইতানোর হাতে ক্যাচ তুলে দেন তামিম। তামিমের পর ২৫ বলে ২০ রান করে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন বিজয়। ১৩তম ওভারে জিম্বাবুয়ের চিভাঙ্গাকে স্ট্রেট ড্রাইভ খেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। বল চিভাঙ্গার হাত ছুয়ে নন স্ট্রাইকের স্টাম্প ভেঙে দেয়। ফলে, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আউট হন বিজয়। আগের ম্যাচে ৬২ বলে ৭৩ রান করেছিলেন তিনি।

এরপর নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে ৫০ রানের পার্টনারশিপ গড়েন মুশফিকুর রহিম। মুশফিক ৩১ বলে ২৫ এবং শান্ত ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সেরা ৩৮ রান করেন। এরপর আফিফ হোসেনকে নিয়ে দলের হাল ধরেন রিয়াদ, যদিও তার শুরুটা ছিল একেবারেই ধীরগতির। আফিফ ৪১ বলে ৪১ রান করেন আউট হলেও ৮৪ বলে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮০ রান করেন রিয়াদ। প্রথম দিকে অতিরিক্ত রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে খেললেও শেষের দিকে রিয়াদ একাই টেনে নিয়ে গেছেন দলকে, ১৩ ইনিংস পর ফিফটির দেখা পেয়েছেন। ৯৫.২৩ স্ট্রাইক রেটে খেলা এই ব্যাটার হাঁকিয়েছেন ৩ ছক্কা ও ৩ চার। বাকিরা কেউই বলার মতো রান করতে পারেনি। জিম্বাবুয়ের পক্ষে সর্বোচ্চ তিন উইকেট নেন সিকান্দার রাজা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img