৩১ জানুয়ারি ২০২৩, মঙ্গলবার

রেলিগেশন লিগের ম্যাচে জিতেছে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ

- Advertisement -

ওল্ড ডিওএইচএসকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ডিপিএলে এখনো টিকে থাকলো লিজেণ্ডস অব রুপগঞ্জ। ওল্ড ডিওএইচএসের ১২২ রানের টার্গেট রুপগঞ্জ অতিক্রম করেছে ৬ উইকেট হাতে রেখে।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে রেলিগেশন লিগের ম্যাচে বিকেএসপিতে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ বনাম ওল্ড ডিওএইচএসের খেলা হওয়ার কথা ছিল কদিন আগে। এরপর হঠাতই বাজে আম্পায়ারিংয়ের শঙ্কায় রুপগঞ্জের সিসিডিএমের কাছে আবেদন ছিল ম্যাচের ভেন্যু চেঞ্জ করার; সিসিডিএমও মেনে নিয়েছিল সেই আবদার। অনেক আলোচনার জন্ম দেয়া রেলিগেশন লিগের সেই ম্যাচে ২২ তারিখ মিরপুরে মুখোমুখি হয় দুই দল।

ছবিঃ অলরাউন্ডার
ছবিঃ অলরাউন্ডার

টস জিতে বৃষ্টিভেজা মাঠে আগে বল করার সিদ্ধান্ত নেন রুপগঞ্জ অধিনায়ক নাঈম ইসলাম। বোলিং সিদ্ধান্তের যথার্থতা প্রমান দিতে ১২ রানেই ডিওএইচএসের ওপেনিং জুটি থামিয়ে দেন স্পিনার নাবিল সামাদ। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দলকে স্থিতিশীল করতে মনোযোগী হন দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান জয় এবং আনিসুল ইসলাম ইমন। দুজনে ৫৮ রানের জুটিতে বল খেলেন ৫৯ টি। জয় ২০ রান করে আউট হন ৩১ বলে। বৃষ্টি আবারও বাগড়া দিলে খেলার দৈর্ঘ্য কমে হয় ১৮ ওভার। বৃষ্টি বিরতির পর ডিওএইচএস মন দেয় রান বাড়ানোর দিকে। ৩৯ বলে ৫৮ করে ইমন আউট হলে ডিওএইচএসের ব্যাটসম্যানদের মাঝে দেখা যায় ড্রেসিংরুমে ফেরার তাগাদা। মাত্র ১৫ রানের ব্যবধানে দলটি হারায় ৪ উইকেট। শেষে বল করতে আসা মুক্তার আলীর ওভারে আলিস আল ইসলাম নেন ১৪ রান; এতেই ডিফেন্ড করার নুন্যতম স্কোর পায় ওল্ড ডিওএইচএস বোলাররা। তাদের ইনিংস শেষ হয় ১১৭-৬ রানে  । রুপগঞ্জের পেসার হোসেন আলী নেন ৩ ওভারে ২৩ রানে ৩ উইকেটে।

ছবিঃ বিসিবি
ছবিঃ ইন্টারনেট

বৃষ্টি আইনে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জের টার্গেট ১২২। ছোটো টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে লিজেন্ডস ওপেনিং জুটিও বড় হয়নি। ২৮ এ প্রথম এবং ২৯ রানে নিজেদের দ্বিতীয় উইকেট হারায় লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ। তিন ও চারে নামা সাব্বির রহমান এবং মেহেদি মারুফ টার্গেট ছোটো করে আনার লক্ষ্যে জুটি গড়ায় মন দেন। বেশ জমে ওঠার পর মেহেদি মারুফের উইকেটে ভাঙ্গে ৪৯ বলে ৬০ রানের জুটি। মারুফের ৩০ রানে আউট হওয়ার পরের বলেই সাব্বিরও ফিরে যান ওই ত্রিশ রানেই। পরপর দুই বলে দুই উইকেটে মরা ম্যাচে জান ফিরে আসে। হাতে ৬ উইকেট নিয়ে রুপগঞ্জের প্রয়োজন শেষ ৪ ওভারে ৩০ রান; এই অবস্থায় ম্যাচের দায়িত্ব নিজের ওপর নেন লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ অধিনায়ক নাঈম ইসলাম। তার অপরাজিত ১৪ বলে ২৭ রানে পাঁচ বল বাকি রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ। নাঈমের ইনিংসের সামনে ম্লান হয় ডিওএইচএস পেসার আব্দুর রশিদের ৪ ওভারে ২২ রানে ৩ উইকেট।

ছবিঃ বিসিবি
ছবিঃ বিসিবি

মিরপুরে দুই দলের এই খেলা উত্তাপ ছড়িয়েছে বেশ। উভয় দলের বডি ল্যাঙ্গুয়েজেই প্রকাশ পেয়েছে ম্যাচ জয়ের আকাঙ্ক্ষা। শেষ পর্যন্ত লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জের অভিজ্ঞতার কাছে হেরেছে তরুণ ওল্ড ডিওএইচএস।

 

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img