২৫ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার

শীর্ষস্থানে ফেরার চ্যালেঞ্জ আতলেতিকো মাদ্রিদের সামনে

- Advertisement -

গেল বছর চার অক্টোবরে হৃদয় ভঙ্গের ক্ষত এখনো শুকবারর কথায় নয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ফুটবলারদের। টটেনহ্যাম তাদেরকে ওইদিন প্রিমিয়ার লিগে ঘরের মাঠে সবচেয়ে বড় হারের লজ্জাটা দিয়েছিল। মৌসুমের প্রথম দেখায় ৬-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল স্পার্সরা। এবার মরিনিয়োদের সামনে রেড ডেভিলদের বিপক্ষে ডাবল জয়ের সুযোগ। সবশেষ যেটা টটেনহ্যাম করে দেখিয়েছিল ৩১ বছর আগে। যদিও বলাটা যত সহজ, কাজটা স্পার্সদের জন্য ততটা কঠিন হবে। বর্তমান পারফরম্যান্সই তাদেরকে পিছিয়ে রাখবে। সবশেষ তিন লিগ ম্যাচে একটা জয়, একটা হার ও একটা ড্র। পয়েন্ট টেবিলে সেরা চারে থাকাটাই স্পার্সদের জন্য এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

তার উপর আবার ইনজুরি সমস্যাতো আছেই। রক্ষণ সামলানো নিয়েই মরিনিয়োর দুশ্চিন্তা। দুই ডিফেন্ডার ম্যাট ডোহার্টি এবং বেন ডেভিস ইনজুরিতে। আরেকজন করোনা পজিটিভ। স্পার্সদের রক্ষণ দুর্বলতায় খুশি হবেন নিশ্চই রেড ডেভিল কোচ সোলশার।

অবশ্য ৬ মাসে নিজেদেরকে অনেকটা পাল্টে ফেলেছে রেড ডেভিলরা। এখন তারা পয়েন্ট টেবিলের উচু স্থানে, দুই নাম্বারে। আগের ওই ম্যাচটা এখন তাদের কাছে পা ফসকে যাওয়ার মতো ঘটনা। ওটাকে খুব বেশি মাথায় নিলেই বিপদ। বরংচ বর্তমানটা নিয়ে ভাবলেই পিছনের দু:সহ স্মৃতি ভুলাটা সহজ হবে। এবার অ্যাওয়ে ম্যাচ, যেখানে রেকর্ডে ভারী রেড ডেভিলরা। প্রিমিয়ার লিগের অ্যাওয়ে ম্যাচে টানা ২২টাতে  অপরাজিত রয়েছে ইংলিশ জায়ান্টরা। যেটা লিগের ইতিহাসে এতো লম্বা সময় আনবিটেন থাকার তৃতীয় রেকর্ড। তাছাড়া সবশেষ ৫ ম্যাচে কোন হার নেই ৩টা জিত দুটা ড্র। ওমন পরিসংখ্যানে বাজির দরে এগিয়ে থাকবে রেড ডেভিলরাই হলফ করে বলাই যায়। ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টায়।

ইনজুরি তালিকায় বড় কোন নাম নেই। গোড়ালি সমস্যা নিয়েই আগের ম্যাচে খেলেছেন মার্কোস রাশফোর্ড। এ ম্যাচেও থাকছেন সোলশারের ভরসা হয়ে। তবে ফরোয়ার্ড অ্যান্তোনি মার্শাল পুরো মৌসুমেই আর মাঠে ফিরতে পারছেন না।

বিকেলের ম্যাচে মন না ভরলে, রাত ১টায় চোখ রাখতে পারেন ইউরোপের আরেক লিগ স্প্যানিশ লা লিগায়। যেখানে হারিয়ে ফেলা পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে আবারও উঠার চ্যালেঞ্জ থাককে আতলেতিকো মাদ্রিদের। যদিও বিরতি থেকে ফিরে হোচট খেয়েছে তারা, সেভিয়ার কাছে হেরে। তালিকায় টপের জায়গাটা হারিয়েছে। ‘এল ক্লাসিকো’ জিতে রিয়াল মাদ্রিদ এখন টেবিল টপে।

এর আগে ঘরের মাঠে ২-০ গোলের জয় আছে, রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে। এবার আতিথ্য নিবে বেতিসের মাঠে। তবে দলের প্রাণভোমরা লুইস সুয়ারেজের নাম কাটা গেছে ইনজুরিতে। অপরদিকে রিয়াল বেতিস আছে পয়েন্ট  তালিকার ছয় নাম্বারে। সবশেষ ৫ লিগ ম্যাচে মাত্র একটা হার। এটা এখন তাদের বড় প্রেরণা। অতীত রেকর্ডে অনেক পিছিয়ে তারা। পরিসংখ্যান যাই হোক, আতলেতিকোকে হারাতে পারলেতো কথাই নেই। ড্র করাটাই বড় চ্যালেঞ্জ থাকবে স্বাগতিকদের।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img