১৪ জুন ২০২৪, শুক্রবার

শেষ ওভারের রোমাঞ্চে ৪ রানে হারল বাংলাদেশ

- Advertisement -

শেষ তিন ওভারে বাংলাদেশের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ২০ রান। তখনও ক্রিজে তাওহীদ হৃদয় ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাংলাদেশের সমর্থকরা ধরেই নিয়েছিলেন টি-টোয়েন্টিতে প্রথমবারের মতো হারাতে চলেছে টাইগাররা। তবে আম্পায়ার্স কলে হৃদয় এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরার পর ম্যাচের চিত্রনাট্যে আসে বদল। শেষ পর্যন্ত আর ম্যাচ জিততে পারেনি বাংলাদেশ। প্রোটিয়াদের কাছে ৪ রানে হেরেছে টাইগাররা।

বাজে ফর্মের কারণে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে সুযোগ পাননি সৌম্য সরকার। তার পরিবর্তে এদিন ইনিংসের শুরুটা করেছেন শান্ত। এখন অব্দি হতাশ করেননি তিনি। বার্টম্যানকে দারুণ একটি ছক্কা মেরেছেন টাইগার অধিনায়ক। তবে এরপরই আবারও সিঙ্গেল নেওয়ার দিকে মনোযোগ দিয়েছেন তিনি। কিন্তু শান্তও উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন। তার আগে ২৩ বলে ১ ছক্কায় করেছেন ১৪ রান।

তাওহীদ হৃদয় ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ করেছেন দুর্দান্ত ব্যাটিং

উইকেটে আসার পর থেকে সাবলীল ব্যাটিং করছিলেন লিটন। তবে ইনিংস বড় করতে না পারার হতাশা নিয়ে ফিরেছন এলকেডি। সাকিব আল হাসান আবারও সমর্থকদের করেছেন হতাশ। ৪ বলে ৩ রান করে আনরিখ নর্কিয়ার বলে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

বাংলাদেশকে বিপদে পড়তে দেননি তাওহীদ হৃদয়-মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের জুটি। দুজনেই করেছেন দায়িত্বশীল ব্যাটিং। তবে আম্পায়ারের বাজে সিদ্ধান্তে উইকেট দিতে হয়েছে হৃদয়কে। তার আগে ৩৪ বলে দুটি করে বাউন্ডারি ও ছক্কায় করেছেন ৩৭ রান। শেষ দুই বলে ৬ রানের প্রয়োজন ছিল বাংলাদেশের। মাহমুদউল্লাহ মেরেছিলেন উড়িয়ে কিন্তু বাউন্ডারিতে তার ক্যাচ নেন মার্করাম।

সাউথ আফ্রিকার হয়ে ৪ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নিয়েছেন কেশব মহারাজ। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন কাগিসো রাবাদা ও আনরিখ নর্কিয়া।

দারুণ বোলিং করেছেন সাউথ আফ্রিকার বোলাররা

এর আগে টস হেরে আগে ফিল্ডিং করতে নেমে সাউথ আফ্রিকাকে ১১৩ রানে আটকে দেয় বাংলাদেশ। প্রোটিয়াদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৬ রানের ইনিংস খেলেছেন হেনরিখ ক্লাসেন।

টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিতে এক মুহুর্তও দেরি করেননি সাউথ আফ্রিকার অধিনায়ক এইডেন মার্করাম। যুক্তরাষ্ট্রের অসম বাউন্সি উইকেটে যেখানে দলগুলো আগে ফিল্ডিং করতে চায়, সেখানে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন প্রোটিয়া অধিনায়ক।

মার্করামের সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিল, তা প্রমাণ করতে ছয় বলের বেশি নেয়নি বাংলাদেশের পেসাররা। প্রথম ওভারের শেষ বলেই রিজা হেনড্রিকসকে এলবিডব্লিউ করেন তানজিম সাকিব। রানের খাতা খোলার আগেই প্যাভিলিয়নে প্রোটিয়া ওপেনার।

শুরুতেই বাংলাদেশকে উইকেট এনে দিয়েছেন তানজিম সাকিব

নিজের দ্বিতীয় ওভারে আবারও সফল তানজিম সাকিব। এবার টাইগার পেসারের শিকার কুইন্টন ডি কক। প্রোটিয়া ওপেনারকে বোল্ড করেন তিনি। পরের ওভারে মার্করামকে বোল্ড করে টাইগার সমর্থকদের আনন্দে ভাসান তাসকিন আহমেদ। শুরুতেই সাফল্য পাওয়ায় তানজিম সাকিবকে দিয়ে পাওয়ারপ্লেতে আরও একটি ওভার করান নাজমুল হোসেন শান্ত। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিতে এক মুহুর্তও দেরি করেননি জুনিয়র সাকিব। ট্রিস্টান স্টাবসকে প্যাভিলিয়নে ফেরান তিনি।

এরপর জুটি গড়ার দিকে মনোযোগ দেন মিলার ও ক্লাসেন। শুরুতে দুজনেই টাইগার বোলারদের দেখেশুনে খেলেছেন। এরপর সময় যত গড়িয়েছে সাবলীল ব্যাটিং করেছেন তারা। ৪৪ বলে ৪৬ রান করা ক্লাসেনকে ফিরিয়ে ৭৯ রানের জুটি ভাঙেন তাসকিন। এরপর মিলারকে বোল্ড করেন রিশাদ হোসেন। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে মিলারের ব্যাট থেকে আসে ৩৮ বলে ১টি করে বাউন্ডারি ও ছক্কায় ২৯ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ৪ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেন তানজিম সাকিব। ২টি উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -

সর্বশেষ

- Advertisement -
- Advertisement -spot_img